টিকা

৮০ শতাংশ মানুষ করোনার টিকা পাবেন

জাতীয়

জনগণকে করোনার টিকা নিতে কোনও অর্থ ব্যয় করতে হবে না বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি বলেন, ‘পর্যায়ক্রমে দেশের ৮০ ভাগ মানুষকে টিকা দেওয়া হবে।’

বৃহস্পতিবার (৩ জুন) বাজেট বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী এ কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, ‘ভ্যাকসিন ক্রয়ে প্রয়োজনীয় অর্থের সংস্থান করবে সরকার। বাজেটে ভ্যাকসিন ক্রয়ের জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ রাখবো আমরা।’

প্রস্তাবিত ২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেট বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘চলমান করোনা মহামারি নিয়ন্ত্রণে প্রতি মাসে ২৫ লাখ মানুষকে টিকা দেওয়ার পরিকল্পনার করছে সরকার।’ সেই সঙ্গে পর্যায়ক্রমে দেশের ৮০ ভাগ মানুষকে টিকা দেওয়া হবে বলেও জানান অর্থমন্ত্রী।

রাশিয়া থেকে সরকারি পর্যায়ে টিকা আমদানির পরিকল্পনার কথা প্রস্তাবিত বাজেটে উল্লেখ করেন অর্থমন্ত্রী। সেই সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের ফাইজার, ফ্রান্স ও বেলজিয়ামের সানোফি ও জিএসকে কোম্পানি থেকেও ভ্যাকসিন আমদানির কথা জানান মন্ত্রী।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘সরকারের টিকাদান কার্যক্রম চালিয়ে নিতে দেড় বিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তা পাওয়া যাবে। মহামারিতে জনগণের সুরক্ষায় ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তিন কোটি ডোজ টিকা কেনার ব্যবস্থা নিয়েছে সরকার। তবে সম্প্রতি ভারতে মহামারি পরিস্থিতির ব্যাপক অবনতি হওয়ার পর থেকে দেশটি ভ্যাকসিন রফতানি বন্ধ রেখেছে।’

প্রস্তাবিত বাজেট বক্তৃতায় তিনি বলেন, ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মাধ্যমে কোভ্যাক্স সুবিধার আওতায় ৬ কোট ৮০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন পাবে বাংলাদেশ। এরমধ্যে ১ দশমিক ০৬ লাখ ডোজ টিকা ইতোমধ্যে দেশে পৌঁছেছে। এভাবে দেশের ৩ কোটি ৪০ লাখ মানুষ টিকা পাবেন, যা দেশের মোট জনসংখ্যার ২০ শতাংশ।’

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য