পঞ্চগড়ে উদ্ধার হওয়া বানরটি এখন বন বিভাগে খাঁচাবন্দি, চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে

পঞ্চগড়ে উদ্ধার হওয়া বানরটি এখন বন বিভাগে খাঁচাবন্দি, চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে

রংপুর বিভাগ

সামসউদ্দীন চৌধুরী কালাম, পঞ্চগড় থেকেঃ পঞ্চগড়ে উদ্ধার হওয়া আহত বানরটিকে পঞ্চগড় বন বিভাগে খাঁচায় রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। চিকিৎসার সাথে নিয়মিতভাবে খাবার দেয়ায় বেশ সুস্থ্য হয়ে উঠেছে বানরটি। পুরোপুরি সুস্থ্য হওয়ার পর উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন বন বিভাগের কর্মকর্তা।

জানা গেছে, গত কয়েকদিন ধরে ভারত সীমান্ত সংলগ্ন পঞ্চগড় সদর উপজেলার ধাক্কামারা ইউনিয়নের বিভিন্ন চা বাগানসহ লোকালয়ে ঘোরাফেরা করছিল বানরটি। বানরটি ধরার জন্য মানুষজন পিটিয়ে আহত করলে জেলা শহরের পুরাতন পঞ্চগড় এলাকায় অতিরিক্ত সচিব আব্দুল মান্নানের বাসায় আশ্রয় নেয় বানরটি। বানরটিকে আশ্রয় দিয়ে বন বিভাগকে খবর দিলে তারা গত সোমবার বিকেলে বানরটি উদ্ধার করে নিয়ে আসে। সেখানে খাঁচায় রেখে চিকিৎসা ও নিয়মিত খাবার দিচ্ছে তারা। এখন বানরটি বেশ সুস্থ্য হয়ে উঠেছে।

পঞ্চগড়ের সামাজিক বনায়ন ও নার্সারী প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হৃষীকেশ চন্দ্র রায় জানান, পঞ্চগড়ের প্রচুর পরিমানে চা বাগান হওয়ায় প্রতিবেশি দেশ ভারত থেকে মাঝে মধ্যেই সীমান্ত পেড়িয়ে বানরসহ অন্যান্য বন্যপ্রাণী পঞ্চগড়ে প্রবেশ করছে। কিন্তু খাদ্যের অভাবে তারা প্রবেশ করছে লোকালয়ে। কিন্তু মানুষজন সচেতন না হওয়ায় এসব বন্যপ্রাণী ধরার চেষ্টা করতে গিয়ে আহত করছে।

এতে করে এসব বন্যপ্রাণী আহত হয়ে মারা যাচ্ছে অথবা সীমান্ত পেড়িয়ে ওপারে চলে যাচ্ছে। তিনি আরও বলেন, উদ্ধার করা বানরটি আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। এটিকে এখন চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। পাশাপাশি নিয়মিত খাবারও দেয়া হচ্ছে। দু’দিনেই বানরটি বেশ সুস্থ্য হয়ে উঠেছে। পুরোপুরি সুস্থ্য হয়ে উঠলে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য