লেকে ভেঙে পড়ল বিমান, ৭ জনের মৃত্যুর শঙ্কা

লেকে ভেঙে পড়ল বিমান, ৭ জনের মৃত্যুর শঙ্কা

আন্তর্জাতিক

যুক্তরাষ্ট্রের টেনেসি অঙ্গরাজ্যের একটি লেকে ছোট একটি বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে। বিমানটিতে সাতজন আরোহী ছিলেন। স্থানীয় সময় শনিবার ওই দুর্ঘটনা ঘটেছে। কর্তৃপক্ষ বলছে, বিমানের কোনো আরোহীরই বেঁচে থাকা সম্ভাবনা নেই। খবর এপির। ফেডারেল বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, সিসনা সি৫০১ বিমানটি পার্সি প্রিস্ট লেকের কাছে বিধ্বস্ত হয়েছে।

দুর্ঘটনার কিছুক্ষনের মধ্যে উদ্ধারকারী দল এবং পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। দুর্ঘটনায় বিমানে থাকা সাতজন আরোহীই মারা গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ফেডারাল বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে জনিয়েছে, বিমানটি স্থানীয় সময় সকাল ১১টার দিকে বিমানবন্দর থেকে যাত্রা শুরু করে। পরে এটি সিরনার কাছাকাছি পার্সি প্রিস্ট লেকে আচমকাই ভেঙে পড়ে।

কী কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটল তা এখনও নিশ্চিত নয়। রাদারফোর্ড কাউন্টির উদ্ধারকর্মীরা খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে ছুটে যান এবং দ্রুত উদ্ধারকাজ শুরু করেন। তবে রাদারফোর্ড কাউন্টি ফায়ার রেসকিউ অপারেশনের ক্যাপ্টেন জোশুয়া স্যান্ডার্স এক সংবাদ সম্মেলনে ইঙ্গিত দিয়েছেন যে, এই ঘটনায় কোনো যাত্রীর বেঁচে থাকার সম্ভাবনা নেই। তিনি বলেন, আমরা সব ধরনের প্রচেষ্টা চালাচ্ছি। কেউ বেঁচে আছে কীনা তা খুঁজে দেখা হচ্ছে।

তবে মনে হয়না কেউ জীবিত আছে। তিনি আরও বলেন, নিহত ব্যক্তিদের পরিবারকে না জানানো পর্যন্ত কারো নাম এখনও প্রকাশ্যে আনা হবে না। শনিবার সকালে প্রথমে এক প্রশাসনিক কর্মকর্তা জানিয়েছিলেন যে, এই ঘটনায় একজন মারা গেছে। তারপর বেলা বাড়তেই জোর দেওয়া হয় উদ্ধার কাজে। উদ্ধারকারীরা প্লেনের ধ্বংসাবশেষ শনাক্ত করতে পেরেছেন। স্যান্ডার্স জানিয়েছেন, দুর্ঘটনা লেকের ওপরে হওয়ায় উদ্ধারকাজ করতে সময় লাগছে।

বিমানটি স্মারনা রাদারফোর্ড কাউন্টি বিমানবন্দর থেকে পাম বিচ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের দিকে যাচ্ছিল। যদিও কর্তৃপক্ষ বিমানের রেজিস্ট্রেশন সম্পর্কিত কোনো তথ্য প্রকাশ করেনি। এক প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে টেনেসির একটি স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, বিমানটি একটি মেরিনার কাছাকাছি ধীরে ধীরে ডুবে গেছে। জাতীয় পরিবহন সুরক্ষা বোর্ড এবং এফএএ উভয়ই ঘটনাস্থলে তদন্ত শুরু করেছে। স্মারনা ন্যাশভিলের প্রায় ৩২ কিলোমিটার দক্ষিণপূর্বে অবস্থিত। পার্সি প্রিস্ট লেক মাছ ধরার জন্য বেশ জনপ্রিয়। সেখানে প্রচুর মানুষ ঘুরে-বেড়াতে যায়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য