জাপান ভ্রমণে যুক্তরাষ্ট্রের সতর্কতা

জাপান ভ্রমণে যুক্তরাষ্ট্রের সতর্কতা

আন্তর্জাতিক

কোভিড-১৯ সংক্রমণ বাড়তে থাকায় জাপান ভ্রমণে মার্কিন নাগরিকদের জন্য সতর্কতা জারি করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

টোকিও অলিম্পিক শুরুর কয়েক সপ্তাহ আগে কড়া নিরাপত্তা পরিস্থিতির মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রবিভাগ সোমবার জাপানে ‘ভ্রমণ করবেন না’ সতর্কতা জারি করে।

তবে মার্কিন অলিম্পিক কর্মকর্তারা বলেছেন, ক্রিড়াবিদরা নিরাপদে খেলায় অংশ নিতে পারবেন বলেই তারা আত্মবিশ্বাসী।

বিবিসি জানায়, জাপান এরই মধ্যে বেশিরভাগ ভ্রমণকারীর ওপর সেদেশে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ।

জাপানে দীর্ঘদিন ধরেই কোভিড রোগী কম ছিল। কিন্তু সম্প্রতি দেশটিতে সংক্রমণের নতুন ঢেউ কয়েকটি শহরের স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থার ওপর চাপ সৃষ্টি করেছে।

জাপানে ৭ লাখের বেশি মানুষের কোভিড শনাক্ত হয়েছে আর মারা গেছে প্রায় ১২ হাজার জন।

যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র (সিডিসি) বলেছে, ভ্রমণকারীদের উচিত জাপানে সব ধরনের ভ্রমণ বাতিল করা।

সতর্ক করে দিয়ে তারা বলেছে, দুই ডোজ কোভিড টিকা যারা নিয়েছেন তারাও বর্তমান পরিস্থিতিতে জাপান ভ্রমণ করলে করোনাভাইরাসের বিভিন্ন ধরনে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিতে পড়তে পারেন।

বিশ্বজুড়ে মহামারীর কারণে বর্তমানে ১৫১টি দেশ ভ্রমণের ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রের চতুর্থ মাত্রার সতর্কতা জারি রয়েছে। এর মধ্যে আছে ইউরোপের বেশিরভাগ দেশও। কোভিড সংক্রমণ ঠেকাতে বিশেষ বিধিনিষেধের আওতায় ইউরোপের দেশগুলোতে বিভিন্ন অনুষ্ঠান, আয়োজন চলছে।

কোভিডের নতুন ধরন সংক্রমিত হওয়ার ভয়ে জাপান সম্প্রতি কোনও পর্যটক বিংবা ব্যবসায়ীকে সেদেশে ভ্রমণ করতে দিচ্ছে না।

বিশেষ কারণ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের ভ্রমণকারীদেরও জাপানে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। করোনাভাইরাস মহামারী মোকাবেলায় স্থানীয় সরকারগুলোকে আরও ক্ষমতা দিতে বর্তমানে জাপানের বড় একটি অংশ জুড়ে জারি রয়েছে জরুরি অবস্থা।

কিন্তু করোনাভাইরাস সংক্রমণ বাড়তে থাকলেও টোকিও অলিম্পিক এখনও আগামী ২৩ জুলাইয়েই শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। গত বছর এ আয়োজন পিছিয়ে দিয়ে এবছর তা অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য