দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে প্রতারণার অভিযোগে পিতলের গণেশ মূর্তিসহ আটক ২

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে প্রতারণার অভিযোগে পিতলের গণেশ মূর্তিসহ আটক ২

দিনাজপুর

দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে প্রতারণার অভিযোগে পিতলের গণেশ মূর্তি সহ দু’জন ব্যক্তিকে আটক করেছে থানা পুলিশ। গতকাল বুধবার (১৯ মে) দুপুরে উপজেলার পালশা ইউনিয়নের বলাহার দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ থেকে তাদেরকে আটক করে পুলিশ।

আটককৃত দু’জন হলো, দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার কালিনজিরা ওহিউড়া গ্রামের আব্দুর রহিমের ছেলে হুমায়ুন কবীর (৩৮) এবং অপরজন একই গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে জসিম উদ্দিন (৩২)।

এই ঘটনায় উপজেলার খোদাদাদপুর গ্রামের আয়নাল হকের মেয়ে দেলোয়ারা বেগম আটক ২ জন সহ তিনজন ব্যক্তির নামে প্রতারণার অভিযোগে ঘোড়াঘাট থানায় একটি মামলা করেছে।

মামলার বাদী দেলোয়ারা বেগম জানান, আটক দুজন ব্যক্তি সম্পর্কে তার আত্মীয় হয়। গত দুই মাস আগে আটক হুমায়ুন কবীর সোনালী রং এর একটি গনেশ মূর্তি নিয়ে তার বাড়িতে যায়। মূর্তিটি স্বর্ণের এবং এর বাজার মূল্য কোটি টাকার কাছাকাছি বলে দেলোয়ারাকে বিভিন্ন প্রলোভন দেখায় হুমায়ুন।

গত মার্চ মাসের ২৫ তারিখে হুমায়ুন দেলোয়ারার কাছে মূর্তিটি রেখে ৩ লাখ টাকা নেন এবং এক মাসের মধ্যে মূর্তিটি বিক্রি করে তাকে দ্বিগুন টাকা দেবে বলে আশ্বস্থ করে। কয়েকদিন পর হুমায়ুন একটি মূর্তি ক্রেতাকে গনেশ মূর্তি দেখানোর জন্য দেলোয়ারার কাছে রাখা মূর্তিটি নিজের হেফাজতে নেন।

এরপর দুই মাস অতিবাহিত হলেও হুমায়ুন তাকে কোন টাকা ফেরত না দিয়ে আরো ৫ লাখ টাকা দাবি করে। এর এক পর্যায়ে গত বুধবার (২০ মে) হুমায়ুনকে বলাহার দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে দেখে সে (দেলোয়ারা) হুমায়ুনের কাছে টাকা ফেরত চায়। হুমায়ুন টাকা ফেরত দিতে পারবে না বলে দেলোয়ারাকে হত্যার হুমকি দেয়।

ঘোড়াঘাট থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) খুরশীদ জাহান বলেন, বলাহার স্কুল মাঠে লোকজনের সমাগম দেখে আমরা সেখানে উপস্থিত যাই। স্থানীয় লোকজন এবং দু’পক্ষের কথা শুনে সন্দেহ হলে আমরা ২জনকে আটক করি। আটকের পর হুমায়ুনের কোমরে লুঙ্গির ভাজে রাখা একটি পিতলের গনেশ মূর্তি জব্দ করি।

ঘোড়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিম উদ্দিন বলেন, মূর্তিটির সামনে অংশ পিতলের এবং এর মাঝে সিসায় ভর্তি। কিন্তু আটক ব্যক্তিরা পিতলের মূর্তিটিকে সোনার মূর্তি বলে প্রতারণা করে আসছিল। আটক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে প্রতারিত হওয়া এক নারী মামলা করেছে।

আটক ব্যক্তিদেরকে আজ বৃহস্পতিবার (২০ মে) সকালে দিনাজপুরের বিজ্ঞ আদালতে পাঠানো হয়েছে। পলাতক অপর একজন আসামীকে গ্রেপ্তার করতে আমরা কাজ করছি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য