গোবিন্দগঞ্জে স্বামীর বাড়ি থেকে নববধুর লাশ উদ্ধার

রংপুর বিভাগ

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে ভালোবাসার মানুষকে পরিবারের অমতে বিয়ে করেছিল কিশোরী শারমিন আক্তার। বিয়ের এক সপ্তাহ না যেতেই লাশ হতে হলো তাকে।

নিহত শারমিন আক্তার সাঘাটা উপজেলার সাথালিয়া গ্রামের মোজাফ্ফর রহমানের মেয়ে। বুধবার গোবিন্দগঞ্জের মহিমাগঞ্জ ইউনিয়নের ছয়ঘড়িয়া গ্রামে স্বামীর বাড়ি থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

জানা গেছে, ছয়ঘরিয়া গ্রামের আশরাফুল ইসলামের ছেলে রেহান মিয়ার সঙ্গে শারমিনের দীর্ঘদিনের প্রেম। ১২ মে পরিবারের অমতে পালিয়ে প্রেমিককে বিয়ে করে সে। বুধবার (১৯ মে) সকালে প্রতিবেশীরা ঘরের ভেতরে শারমিনের লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে।

নিহতের স্বজনদের অভিযোগ, শ্বশুরবাড়ির লোকজন নির্যাতন করে শারমিনকে হত্যা করেছে।

গোবিন্দগঞ্জ থানার এসআই আলাউদ্দিন জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাইবান্ধা জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ওই গ্রামের প্রতিবেশী ঠাণ্ডু আকন্দের ছেলে জুয়েল মিয়াকে আটক করা হয়েছে।

গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি মেহেদী হাসান বলেন, এ ঘটনায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে। নিহতের স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য