চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট

অনলাইনে জুয়া ব্যবসা পরিচালনার অভিযোগে ৩ দিনের রিমান্ডে চারজন

জাতীয়

ভার্চুয়াল কারেন্সি ব্যবহার করে অনলাইনে জুয়া ব্যবসা পরিচালনার অভিযোগে গ্রেপ্তার চারজনকে তিন দিন পুলিশ হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার রিমান্ড আবেদনের শুনানি শেষে মহানগর হাকিম মfইনুল ইসলাম এই আদেশ দেন।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেপ্তার এই চারজনকে ১০ দিনের জন্য রিমান্ড চান তদন্তকারী কর্মকর্তারা।

আসামিপক্ষ থেকে রিমান্ড বাতিল করে জামিন মঞ্জুরের আবেদন করা হয়। শুনানি শেষে তা নাকচ করেন বিচারক বলে জানান সংশ্লিষ্ট আদালতে পুলিশের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা এস আই মো. সেলিম।

সোমবার রাজধানীর খিলক্ষেত থানার নিকুঞ্জ এলাকা থেকে সিটিটিসির ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম বিভাগের ইকোনমিক ক্রাইম অ্যান্ড হিউম্যান ট্রাফিকিং টিম মোঃ শাহিনুর রহমান (২৬), দীপ্ত রায় প্রান্ত (২৫), মোঃ গোলাম মোস্তফা (২৬) ও মোঃ রাকিবুল হাসানকে (২৭) গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তারের সময় তাদের কাছে থাকা অনলাইন জুয়ায় ব্যবহৃত ল্যাপটপ, আইপ্যাড, একাধিক স্মার্ট ফোন, হার্ডডিস্ক, পাসপোর্ট এবং জাতীয় পরিচয়পত্র উদ্ধার করা হয়।

খিলক্ষেত থানায় দায়র করা মামলায় বলা হয়, একটি সংঘবদ্ধ দেশি ও বিদেশি প্রতারকচক্র বিভিন্ন প্রকার ভার্চুয়াল কারেন্সি ও পেমেন্ট গেটওয়ে ব্যবহার করে অনলাইনে জুয়া পরিচালনা করছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে নিকুঞ্জ এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এরা প্রত্যেকেই বিভিন্ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র।

মামলার নথিতে বলা হয়, গ্রেপ্তার হওয়া শাহিনুর ক্যাসিনো প্ল্যাটফর্মের বিভিন্ন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অনলাইন জুয়া পরিচালনাসহ অর্থ লেনদেন করে এবং পেমেন্ট গেটওয়ে মেলবেট ও লাইনবেট এর সরাসরি এজেন্ট।

বাকি তিনজন দীপ্ত রায়, মোস্তফা ও রাকিবুল মুভক্যাশের মাধ্যমে অনলাইনে জুয়া পরিচালনা করত।

তারা দেশের ও বিদেশের বিভিন্ন এজেন্টের কাছ থেকে ভার্চুয়াল কারেন্সি সংগ্রহ করে এবং দেশব্যাপী অনলাইন জুয়াড়িদের সরবরাহ করতেন।

তারা এসব বিক্রি ও অর্থ লেনদেনের জন্য মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করতো। -বিডিনিউজটোয়েন্টিফোরডটকম

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য