পল্লী চিকিৎসককে ফাঁসাতে থানায় মিথ্যা অভিযোগ, প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

পল্লী চিকিৎসককে ফাঁসাতে থানায় মিথ্যা অভিযোগ, প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

রংপুর বিভাগ

সংবাদ সম্মেলনঃ প্রতিপক্ষকে হয়রানী করতে হাতীবান্ধা থানায় মিথ্যা অভিযোগ দায়েরের অভিযোগ উঠেছে জাহেদা বেগম ওরফে হাওয়া নামে এক গৃহবধুর বিরুদ্ধে।

সোমবার (১০ মে) দুপুরে ওই গৃহবধুর একাধিক মামলায় হয়রানীর শিকার পল্লী চিকিৎসক রেজাউল করিম লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার সোনালী ব্যাংকস্থ তার নিজ বাসভবনে

প্রশাসনের সহযোগীতা চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে পল্লী চিকিৎসক রেজাউল করিম বলেন, পার্শ^বর্তী সিঙ্গিমারী গ্রামের ফজলুল হকের স্ত্রী জাহেদা বেগম ওরফে হাওয়ার সাথে আমার একাধিক মামলা আদালতে বিচারধীন রয়েছে। তিনি আমাকে নতুন ভাবে হয়রানী করতে গত ৬ মে হাতীবান্ধা থানায় আমার বিরুদ্ধে আরও একটি মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করেন।

ওই অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, জাহেদা বেগম ওরফে হাওয়া আমার কাছে নাকি ১০ লক্ষ টাকা পায়। ওই টাকা চাইতে আসলে আমি নাকি তাকে মারধর করি। যেখানে গত ৩ বছর ধরে তার সাথে একাধিক মামলা চলে আসছে এবং আমার কাছে ২ লক্ষ টাকা পাবে ২০১৮ সালে দায়ের করা এমন একটি মামলা আদালতে বিচারধীন রয়েছে। সেখানে তার কাছ থেকে আমি আরও ১০ লক্ষ টাকা নিয়েছি এবং তিনি তা দিয়েছে সেটা কতটুকু বিশ্বাসযোগ্য?

সিঙ্গিমারী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ডা. করিমের পূত্র পল্লী চিকিৎসক রেজাউল করিম আরও বলেন, আমাকে ও আমার পরিবারকে হয়রানী করতেই বিভিন্ন সময় নাটক সাজিয়ে থানায় একের পর এক মিথ্যা অভিযোগ দেয়া হচ্ছে। দুই একজন সাংবাদিককে মিথ্যা তথ্য দিয়ে আমার বিরুদ্ধে কাল্পনিক গল্প বানিয়ে দুই একটি গণমাধ্যমে সংবাদও প্রকাশ করা হয়েছে। যার সাথে বাস্তবতার বিন্দু মাত্র মিল নেই।

সংবাদ সম্মেলনে পল্লী চিকিৎসক রেজাউল করিমের মেয়ে জামাতা বদরুজ্জামান সাজু তার শ্বশুর পরিবারের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা ও অভিযোগ প্রত্যাহারসহ জাহেদা বেগম ওরফে হাওয়ার হয়রানী থেকে রক্ষায় স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগীতা কামনা করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য