রংপুরে স্ত্রীর মৃত্যুর শোকে স্বামীর আত্মহত্যা

রংপুর

রংপুরে স্ত্রীর মৃত্যুর শোকে বিষপান করে আত্মহত্যা করেছেন স্বামী বাবু মিয়া। বুধবার (৫ মে) সকালে পীরগাছা উপজেলার কান্দি ইউনিয়নের দোয়ানী মনিরাম গ্রাম থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। স্ত্রীর মৃত্যুর ১৫ দিন পর শোকে কাতর হয়ে তিনি আত্মহত্যার পথ বেঁচে নেন।নিহত বাবু মিয়া ওই এলাকার জাহাঙ্গীর মিয়ার ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রায় বছর খানেক আগে গাইবান্ধার সাদুল্যাপুরে পশ্চিম খামার দশলিয়া গ্রামের মৃত সমুর আলীর মেয়ে সুমি আক্তারকে বিয়ে করেন বাবু। বিয়ের পর থেকে শশুড়বাড়িতে বউ নিয়ে থাকতেন তিনি। অন্যের বাড়িতে বিভিন্ন কাজকর্ম করে সংসার চালাতেন।

গত ২০ এপ্রিল দুপুরে সুমি আক্তার বাড়ির পার্শ্ববর্তী একটি মাঠে গরুকে খাওয়ানোর জন্য ঘাস কাটতে যায়। এ সময় ঝুলন্ত তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলে মারা যায় সুমি আক্তার। এতে মানষিকভাবে পুরো দমে ভেঙ্গে পড়েন বাবু।

পরে তিনি পীরগাছায় বাবার বাড়িতে ফিরে আসেন। তবে স্ত্রীর মৃত্যুর শোকে তিনি স্বাভাবিক ছিলেন না। বিয়ের এক বছরের মাথায় স্ত্রীর মৃত্যু কোনভাবেই মেনে নিতে পারছিলেন না।

শোকে বিহব্বল অবস্থায় মঙ্গলবার (৪ মে) রাত ১১টার দিকে বাড়িতে সবার অজান্তে বিষপান করলে রাত ১২টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

এলাকাবাসীর ধারণা ধারণা স্ত্রীর মৃত্যুশোক সইতে না পেরে বাবু মিয়া আত্মহত্যা করেছেন।

এ বিষয়ে পীরগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিজুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ না থাকায় মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে এ ঘটনায় একটি ইউডি মামলা হয়।