গাইবান্ধায় ব্যবসায়ী হত্যার প্রতিবাদে সপ্তাহব্যাপী কালো পতাকা উত্তোলন ও কালো ব্যাচ ধারণ কর্মসূচী

গাইবান্ধায় ব্যবসায়ী হত্যার প্রতিবাদে সপ্তাহব্যাপী কালো পতাকা উত্তোলন ও কালো ব্যাচ ধারণ কর্মসূচী

রংপুর বিভাগ

গাইবান্ধার পাদুকা ব্যবসায়ী হাসান আলী হত্যার প্রতিবাদে ৪ দফা দাবিতে বৃহস্পতিবার সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচী শুরু করা হয়। কর্মসূচীর মধ্যে রয়েছে সকাল ১১টা থেকে সপ্তাহব্যাপী ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কালো পতাকা উত্তোলন ও কালো ব্যাচ ধারণ, জেলা শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে পথসভা এবং ২ মে স্থানীয় গানাসাস মার্কেটের সামনে প্রতিবাদী অবস্থান কর্মসূচী। হাসান হত্যার প্রতিবাদ মঞ্চ এই কর্মসূচীর আয়োজন করে।

গাইবান্ধা নাট্য সংস্থা চত্বরে কালো পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে সপ্তাহব্যাপী কালো পতাকা উত্তোলন ও কালো ব্যাচ ধারণের মাধ্যমে কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন হাসান হত্যার প্রতিবাদ মঞ্চের সমন্বয়ক আমিনুল ইসলাম গোলাপ। এসময় এবং জেলা শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে অনুষ্ঠিত পথসভায় বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক-সাংস্কৃতিক, চেম্বার অব কমার্স ও ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ওয়াজিউর রহমান রাফেল, মিহির ঘোষ, গোলাম মারুফ মনা, অ্যাড. সিরাজুল ইসলাম বাবু, জিয়াউল হক জনি, জাহাঙ্গীর কবীর তনু, শহিদুল ইসলাম শান্ত, নিলুফার ইয়াসমিন শিল্পী প্রমুখ।

বক্তারা হাসান আলী হত্যার দায়ে অবিলম্বে ৪ দফা দাবি বাস্তবায়নের দাবি জানান। দাবিগুলো হচ্ছে হাসান হত্যার সকল আসামিদের গ্রেফতার, সদর থানার বর্তমান ওসির অপসারণসহ অভিযুক্ত ওসি (তদন্ত) ও অপর এএসআই এর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ, সুষ্ঠু বিচারের জন্য বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন এবং গাইবান্ধা জেলা থেকে অবিলম্বে অবৈধ সুদ ও দাদন ব্যবসায়ীদের দৌরাত্ম বন্ধ। সভায় বক্তারা আরও উল্লেখ করেন, অবিলম্বে দাবিসমূহ পূরণ না হলে পরবর্তী লাগাতার এবং বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

উল্লেখ্য, সুদের টাকা পরিশোধ না করায় গত ৫ মার্চ পাদুকা ব্যবসায়ী হাসান আলীকে অপহরণ করেন গাইবান্ধা জেলা আওয়ামী লীগের বহিস্কৃত উপ-দপ্তর স¤পাদক শহরের চিহ্নিত দাদন ব্যবসায়ী মাসুদ রানা। এরপর গত ১০ এপ্রিল মাসুদ রানার বাড়ির টয়লেট থেকে ব্যবসায়ী হাসান আলীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য