ঘরোয়া উপায়ে ফিরে পান ঝলমলে ত্বক

ঘরোয়া উপায়ে ফিরে পান ঝলমলে ত্বক

সাজগোজ টিপস

বকে ট্যান পড়েছে? চোখের নীচে কালো কালি? ত্বকে কালচে দাগ-ছোপ? বহু নামীদামি ব্র্যানএর কসমেটিক্স ব্যবহার করে ফল মিলছে না? টেনশন শিকেয় তুলুন! একেবারে ঘরোয়া উপায়ে দূর করুন ত্বকের দাগ-ছোপ।

১/ রোদ থেকে বাড়ি ফিরে কাঁচা দুধে তুলো ভিজিয়ে মুখ, গলা, ঘাড় এবং শরীরের অনাবৃত অংশ পরিষ্কার করে নিন। এতে ট্যান বা সূর্যে পোড়া দাগ দূর হবে। রোদ থেকে বাড়ি ফিরে কাঁচা দুধে তুলো ভিজিয়ে মুখ, গলা, ঘাড় এবং শরীরের অনাবৃত অংশ পরিষ্কার করে নিন। এতে ট্যান বা সূর্যে পোড়া দাগ দূর হবে।

২/ নিয়মিত লেবুর রস মুখে দিতে পারেন। গুঁড়ো দুধ ও গ্লিসারিন মিশিয়ে ব্যবহার করলেও ত্বকের কালচে দাগ-ছোপ দূর হয়। নিয়মিত লেবুর রস মুখে দিতে পারেন। গুঁড়ো দুধ ও গ্লিসারিন মিশিয়ে ব্যবহার করলেও ত্বকের কালচে দাগ-ছোপ দূর হয়।

৩/ লেবু ও মধু পিগমেন্টেইশন দূর করার পাশাপাশি ত্বক উজ্জ্বল করে। একটা লেবুর রস নিয়ে তাতে একই পরিমাণ মধু মিশিয়ে নিন। দাগের ওপর মিশ্রণটি মেখে ১৫ থেকে ২০ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলুন। লেবু ও মধু পিগমেন্টেইশন দূর করার পাশাপাশি ত্বক উজ্জ্বল করে। একটা লেবুর রস নিয়ে তাতে একই পরিমাণ মধু মিশিয়ে নিন। দাগের ওপর মিশ্রণটি মেখে ১৫ থেকে ২০ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলুন।

৪/ গোলাপ জল ও গ্লিসারিনের মিশ্রণ কালচে ভাব দূর করার পাশাপাশি ঠোঁটের চারপাশের শুষ্কতা কমায়। দটি উপাদান সমপরিমাণে মিশিয়ে আক্রান্ত স্থানে মেখে সারা রাত রেখে দিন। পরদিন সকালে তা ধুয়ে ফেলুন। গোলাপ জল ও গ্লিসারিনের মিশ্রণ কালচে ভাব দূর করার পাশাপাশি ঠোঁটের চারপাশের শুষ্কতা কমায়। দটি উপাদান সমপরিমাণে মিশিয়ে আক্রান্ত স্থানে মেখে সারা রাত রেখে দিন। পরদিন সকালে তা ধুয়ে ফেলুন।

৫/ সাধারণ সাবান ব্যবহার করবেন না। এতে থাকা ক্ষার ও কেমিক্যাল ত্বকের ক্ষতি করে। অ্যারোমেটিক ফেস ওয়াশ ব্যবহার করতে পারেন। সাধারণ সাবান ব্যবহার করবেন না। এতে থাকা ক্ষার ও কেমিক্যাল ত্বকের ক্ষতি করে। অ্যারোমেটিক ফেস ওয়াশ ব্যবহার করতে পারেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য