পাকিস্তানে ধর্মীয় রাজনৈতিক দল নিষিদ্ধ হচ্ছে

আন্তর্জাতিক

উগ্রপন্থি আচরণের দায়ে পাকিস্তানের একটি ধর্মীয় রাজনৈতিক দল নিষিদ্ধ করতে যাচ্ছে সরকার। সম্প্রতি আন্দোলনের নামে দুই পুলিশ সদস্যকে হত্যা, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ওপর হামলা এবং জনসাধারণের জানমালের ক্ষতি করার অভিযোগে তেহরিক-ই লাব্বাইক পাকিস্তান (টিএলপি) নামে ওই রাজনৈতিক দলটিকে নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে আরব নিউজ।

জানা যায়, ইতিমধ্যে দেশটির মন্ত্রিসভায় দলটিকে নিষিদ্ধ করার প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়েছে।

গত সোমবার চরমপন্থী ইসলামিক দল টিএলপি নেতা সাদ হুসাইন রিজভীকে আটকের পর থেকেই বিক্ষোভ করছে দলটির কর্মীরা। লাহোরের পুলিশ প্রধান গোলাম মেহমুদ দোগার এক হাসপাতালে আহত পুলিশ সদস্যদের দেখতে গিয়ে বলেন, বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত দুই পুলিশ কর্মকর্তা মারা গেছেন, এছাড়া আহত হয়েছেন আরো ১২৫ জন।

মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) রিজভীর বিরুদ্ধে একজন পুলিশ কনস্টেবলকে হত্যার প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে। কর্তৃপক্ষ বলছে, বিক্ষোভকারীরা তাকে অপহরণ করেছিল এবং পরে তাকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছিল।

পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমেদ এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, টিএলপির সন্ত্রাসী হামলায় দুজন পুলিশ নিহত এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর আরও ৩৪০ সদস্য গুরুতর আহত হয়েছেন। দেশে অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টির দায়ে এ ধর্মীয় দলটির নিষিদ্ধের আবেদন করা হয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায়। আশা করা যাচ্ছে মন্ত্রিসভায় এ প্রস্তাবটি পাস হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য