দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার ভাদুড়িয়া বাজারে নির্মিত ৫টি দোকানঘর রাতের আধারে ভেঙ্গে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে। এব্যাপারে ভুক্তভোগী ওই চেয়ারম্যানসহ ২০ জনের নাম উল্লেখ করে আরও অজ্ঞাতনামা ৪০ থেকে ৪২ জনের নামে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে।

থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, সম্প্রতি ভাদুরিয়া বাজারে উপজেলার শিমর গ্রামের মৃত তছলিম উদ্দীনের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম নিজ নামীয় জমিতে ৫টি দোকান ঘর নির্মান শুরু করে। শুক্রবার রাতে ইউপি চেয়ারম্যানের হুকুমে একদল সন্ত্রাসী নির্মিত ৫টি দোকান ভেঙ্গে দেয়।

সন্ত্রাসীরা দোকানগুলো ভাংচুরের পর নির্মিত দোকানঘরে রাখা ৩০ মন রড ও ৫০ বস্তা সিমেন্ট পাওয়ার ট্রিলার যোগে নিয়ে চলে যায়। এতে ভুক্তভোগীর প্রায় ১০ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন হয়েছে বলে অভিযোগ উল্লেখ করেন।

সেই ইউপি চেয়ারম্যানের সাথে মোবাইলে কথা বললে রাতের আধারে দোকানঘর গুলো ভেঙ্গে দেওয়ার কথা স্বীকার করে তিনি বলেন, দোকানঘরগুলোর জায়গাটি তার বাবা নিজস্ব সম্পত্তি। জায়গাটির সমস্ত কাগজপত্র তাদের কাছে রয়েছে। জাহাঙ্গীর আলম তাদের জমি দখল করে অবৈধভাবে দোকানগুলো নির্মান করছিল।

নবাবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অশোক কুমার চৌহান জানান, ভাদুড়িয়া বাজারে নির্মিত দোকান ঘর ভাঙ্গার বিষয়ে জাহাঙ্গীর আলম নামে একজন এজাহার দায়ের করেছেন। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্ত সম্পন্ন হলে দোষীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য