স্বাধীনতার সুবর্নজয়ন্তী সম্মাননা পেলেন হাবিপ্রবি রেজিস্ট্রার

দিনাজপুর

হাবিপ্রবি সংবাদাতাঃ মুক্তিযুদ্ধ ও শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য “ইউনাইটেড মুভমেন্ট ফর হিউম্যান রাইটস” এর পক্ষ থেকে স্বাধীনতার সুবর্ন জয়ন্তী সম্মাননা-২০২১ পেয়েছেন দিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ও ভেটেরিনারি এন্ড এনিমেল সায়েন্স অনুষদের সাবেক ডীন বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর ডা.মো: ফজলুল হক।

শুক্রবার ঢাকাস্থ ইন্টারকন্টিনেন্টাল ক্রিস্টাল বলরুমে স্বাধীনতার সুবর্ন জয়ন্তী উপলক্ষ্যে মুক্তিযুদ্ধে ও শিক্ষাক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরুপ এই সম্মাননা ও সনদ প্রদান করা হয়। বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর ডা.মো: ফজলুল হক এর পক্ষে সম্মাননা গ্রহণ করেন তার দুই সন্তান ফাতেহাতুন নুর সোনিয়া (সহকারী অধ্যাপক, হাবিপ্রবি) ও ইসলামুল হক সোহাগ। অনুষ্ঠানের প্রধান হিসেবে উপস্থিত থেকে এ সম্মাননা তুলে দেন বাংলাদেশ হাইকোর্ট ডিভিশনের বিচারপতি এস.এম মজিবুর রহমান।

এ বিষয়ে প্রফেসর ডা.মো: ফজলুল হক বলেন, মুক্তিযুদ্ধ ও শিক্ষাক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে “ইউনাইটেড মুভমেন্ট ফর হিউম্যান রাইটস” এর পক্ষ থেকে মুজিব জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ন জয়ন্তীতে আমাকে এই সম্মাননা ও সনদ প্রদানের জন্য আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। ১৯৭১-এ যেভাবে পাকিস্তানি শোষণ নিপীড়নের বিরুদ্ধে নিজের জীবন-কে বাজি রেখে যুদ্ধ করেছি। যতদিন বেচে থাকবো ততদিন ইনশাআল্লাহ দেশ ও জাতির কল্যানে আমার সকল ধরনের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

উল্লেখ্য, এর আগেও বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক ডা. মো. ফজলুল হক তার বিভিন্ন কাজের অবদানের স্বীকৃতি স্বরুপ মুক্তিযোদ্ধা সম্মাননা, মহান মাতৃভাষা সম্মাননা, জেনারেল এমএজি ওসমানী সম্মাননা, মাদার তেরেসা এ্যাওয়ার্ড, দানবীর হাজী মুহম্মদ মহসীন আজীবন সম্মাননা, করোনায় সচেতনতা সৃষ্টির স্বীকৃতি হিসেবে নেপাল -বাংলাদেশ বন্ধু সংঘের পক্ষ থেকে কোভিড-১৯ যোদ্ধা সম্মাননাসহ বিভিন্ন সম্মাননা ও পদকে ভূষিত হয়েছেন। এর আগে বিসিএস ক্যাডার সার্ভিসে কর্মরত থাকাকালীন ডাকাত দলের দুই সদস্যকে হাতে নাতে ধরে পুলিশে সোপর্দ করায় বীরত্ত্বের সম্মাননা হিসেবে তিনি একটি এসবিবিএল গান (SBBL GUN) পুরষ্কার লাভ করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য