কুড়িগ্রামের ৮ বছরের শিশু ধর্ষণের শিকার

রংপুর বিভাগ

কুড়িগ্রামের উলিপুরে গরুর ঘাস কাটতে গিয়ে দ্বিতীয় শ্রেণী পড়ুয়া ৮ বছরের এক শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। এ ঘটনায় ওই শিশুর পিতা বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত মহুবর রহমান (৫০) নামের এক ব্যক্তিকে আটক বুধবার জেল-হাজতে প্রেরণ করেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে, উপজেলার গুনাইগাছ ইউনিয়নে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, গতকাল মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) দুপুরে ওই ইউনিয়নের রামধন দাসপাড়া গ্রামের শিশুটি তার এক সহপাঠির সঙ্গে বাড়ির পশ্চিম পাশের্ব একটি নালায় গরুর ঘাস কাটতে যান। এসময় ওই স্থানে আগে থেকেই গরুকে ঘাস খাওয়াইতে ছিলেন রামধন বড়বাড়ি গ্রামের মহুবর রহমান। পরে মহুবর শিশুটির কাছে কামলালসা চরিতার্থের জন্য তাকে জড়িয়ে ধরেন। এ ঘটনা দেখে তার সহপাঠি দৌঁড়ে বাড়িতে এসে শিশুটির বাবা-মাকে বিষয়টি খুলে বলে।

এ সুযোগে মহুবর শিশুটিকে নালার একটু দূরে নির্জন এলাকায় নিয়ে গিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এসময় শিশুটির আত্মচিৎকারে মহুবর তাকে ফেলে পালিয়ে যায়। পরে প্রতিবেশিদের সাথে নিয়ে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে গুরুত্বর আহত অবস্থায় কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় শিশুটির পিতা বাদি হয়ে রাতেই উলিপুর থানায় মামলা করলে পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত মহুবর রহমানকে আটক করে জেল-হাজতে প্রেরণ করেন।

উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ইমতিয়াজ কবির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আটক মহুবর রহমানকে বুধবার আদালতের মাধ্যমে জেল-হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য