বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পর এবার ইউরোপীয় ইউনিয়নের মেডিসিন্স রেগুলেটর থেকেও অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার সঙ্গে রক্ত জমাট বাঁধার কোনো সম্পর্ক থাকার ইঙ্গিত নেই বলে জা‍নানো হয়েছে।

অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় রক্ত জমাট বাঁধার খবরে নরওয়ে, বুলগেরিয়া, ডেনমার্ক, জার্মানি, ফ্রান্স, স্পেন, ইতালি, আয়ারল্যান্ড, আইসল্যান্ডসহ ইউরোপ ও ইউরোপের বাইরের অন্তত ১৬টি দেশ ওই টিকা দেওয়া স্থগিত করে।

ইউরোপিয়ান মেডিসিন্স এজেন্সির (ইএমএ) প্রধান এমার কুক বলেন, তিনি ‘দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করেন’ অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকায় ঝুঁকির চাইতে লাভ অনেক অনেক বেশি।

অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা গ্রহণের পর যে ‍অল্প কয়েকজনের রক্ত জমাট বাঁধার ঘটনা ঘটেছে তাদের ঠিক কী কারণে এ সমস্যা হয়েছে তা পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

ডব্লিউএইচও থেকেও এই টিকা দান স্থগিত না করার অনুরোধ করা হয়েছে। অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার নিরাপত্তা পর্যবেক্ষণে মঙ্গলবার ডব্লিউএইচওর বিশেষজ্ঞদের একটি দলের বৈঠক করার কথা রয়েছে।

রক্ত জমাট বাঁধা বিষয়ে অ্যাস্ট্রাজেনেকা কর্তৃপক্ষ বলেন, ইউরোপ ও যুক্তরাজ্যের এক কোটি ৭০ লাখের বেশি মানুষ তাদের টিকা নিয়েছে। তার মধ্যে মাত্র ৩৭ জনের শরীরে রক্ত জমাট বাঁধার উপসর্গ দেখা গেছে।

যুক্তরাজ্যের মেডিসিন্স রেগুলেটর থেকেও অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার সঙ্গে রক্ত জমাট বাঁধার সম্পর্ক পাওয়া যায়নি বলে জানানো হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য