দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের বীরগঞ্জে গাঁজার গাছ, গাঁজা ও ফেনসিডিল সহ ৭জনকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ।

বীরগঞ্জ থানা সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল রাত ৮টার দিকে বীরগঞ্জ পৌরসভার উল্লাস মোড়ে বীরগঞ্জ থানার এসআই স্বপন পালের নেতৃত্বে এএসআই সুদান এএসআই মোহাম্মদ আলী, এএসআই দীনেশ চন্দ্র বর্মণ, কনেস্টবল মোঃ সোলেমানসহ থানা পুলিশের একটি চৌকস দলের বিশেষ অভিযানে ২নং ওয়ার্ড উত্তর সুজালপুর গ্রামের নুর ইসলামের ছেলে নুর আলম (৩৫), কলেজ মোড়ের মৃত হাসান আলীর ছেলে নুর ইসলাম(৫০) কে আটক করে দেহ তল্লাশি করে ২ বোতল ভারতীয় ফেনসিডিল পাওয়া যায়।

তাদের বিরুদ্ধে ২০১৮ সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের হয়েছে যার মামলা নং- ০২, তারিখ ০৫/৩/২০২১ইং। প্রকাশ থাকে, নুর ইসলাম একাধিক চলমান মাদক মামলার এজাহার নামীয় আসামী এবং স্থানীয় প্রভাবশালী ও মাদক ব্যবসায়ীর মদতে দীর্ঘকাল যাবত কলেজ মোড় এলাকায় মাদকদ্রব্যের ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে।

অন্যদিকে শুক্রবার রাত ১১টার দিকে উপজেলার মরিচা ইউনিয়নের চৌদ্দহাত বাজারে অবস্থানকালে মাদকদ্রব্য বেঁচাকেনার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বীরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল মতিন প্রধানকে অবগত করে ও তার নির্দেশে এসআই মোঃ নজমুল হক সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্সসহ ৯ নং ওয়ার্ডের ডাবরা জিনেশ্বরী গ্রামে অভিযান চালিয়ে কেশরি চন্দ্র রায়ের ছেলে কেশব চন্দ্র(৪০)কে দেহ তল্লাশি করে পলিথিনে মোড়ানো তার নিজের রসুন ক্ষেত থেকে সদ্যতোলা ৪ ফুট উচ্চতার ২টি গাঁজার গাছ ও একই এলাকার সোমারু বর্মনের ছেলে নারায়ণ চন্দ্র রায় (৩৬), আঃ লতিফের ছেলে বশির(৩০), বিরেন্দ্র নাথের ছেলে রতন চন্দ্র(২০), মরিচা চৌধুরী পাড়ার মৃত খালেকের ছেলে কালু মিয়া (৩২) এর কাছ থেকে শুকনা গাঁজা পাওয়া যায়।

আটককৃতদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। যার নং-০৩, তারিখ ০৬/০৩ /২০২১ইং। উল্লেখ্য যে নারায়ণের নামে ইতিপূর্বে জুয়া আইনের একটি মামলা চলমান রয়েছে। শনিবার দুপুরে আটককৃত ৭ আসামীকে আদালতে সোপর্দের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য