উড্ডয়নের সময় বিকল হয়ে যুক্তরাষ্ট্রের একটি আবাসিক এলাকার ওপর পড়েছে একটি বোয়িং জেট বিমানের ইঞ্জিন। বাকি একটি ইঞ্জিন সচল থাকায় ২৪১ আরোহী নিয়ে নিরাপদে অবতরণ করতে সক্ষম হয়েছে বোয়িং ৭৭৭ বিমানটি। ডেনভারের কাছে একটি আবাসিক এলাকার ওপর ইঞ্জিনটি পড়লেও এতে কেউ হতাহত হয়নি। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, হনলুলুগামী ইউনাইটেড এয়ারলাইন্সের ৩২৮ ফ্লাইটের বিমানটির ডান দিকের ইঞ্জিন উড্ডয়নের কিছুক্ষণের মধ্যেই বিকল হয়ে যায়। উড্ডয়নের কিছুক্ষণের পরই যাত্রীরা বড় ধরনের বিস্ফোরণের শব্দ শুনতে পায়। একটি ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়লেও ২৩১ জন যাত্রী ও দশ জন ক্রু নিয়ে বিমানটি নিরাপদে ডেনভার বিমানবন্দরে ফিরে আসতে সক্ষম হয়। একটি বাড়ির বাগানের ওপর ভেঙে পড়া ইঞ্জিনের ছবি অনলাইনে পোস্ট করেছে ব্রুমফিল্ড পুলিশ।

বিমানটির এক আরোহী জানিয়েছেন, বিস্ফোরণের শব্দ শোনার পর বিমানের পাইলট এক ঘোষণা দিয়ে যাত্রীদের বিষয়টি জানান। ডেভিড ডেলুসিয়া নামের ওই যাত্রী বলেন, ‘বিমানটি ভয়ানকভাবে কাঁপতে শুরু করে। আমরা উচ্চতা হারাতে থাকি আর নিচে পড়তে থাকি।’ তিনি জানান, নিচে পড়ে গেলে যেন আমাদের পরিচয় চিহ্নিত করা যায় সেকারণে তিনি ও তার স্ত্রী নিজেদের পকেটে পরিচয়পত্র নিয়ে নেন।

স্থানীয় বাসিন্দাদের ভেঙে পড়া বিমানের ধ্বংসাবশেষ স্পর্শ এবং তা সরানো থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছে ব্রুমফিল্ড পুলিশ। এই ঘটনা খতিয়ে দেখবে এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ এবং জাতীয় পরিবহন নিরাপত্তা বোর্ড।

ব্রুমফিল্ডের এক বাসিন্দা জানান তিনি ধ্বংসাবশেষ ওপর থেকে পড়তে দেখে সন্তানদের নিয়ে বাড়ির মধ্যে আশ্রয় নেন। কাইরেন কেইন নামের ওই বাসিন্দা বলেন, ‘বড় বিস্ফোরণ শুনে ওপরের দিকে তাকিয়ে কালো ধোঁয়া দেখতে পাই। ধ্বংসাবশেষ পড়তে শুরু করলো। মনে হতো লাগলো যেন ভেসে ভেসে পড়ছে। তবে এখন দেখা যাচ্ছে সেগুলো বড় বড় ধাতব টুকরো।’

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য