ইরাকের রাজধানী বাগদাদের উত্তরে বালাদ সামরিক ঘাঁটিতে রকেট হামলা চালানো হয়েছে, এতে একজন ইরাকি ঠিকাদার আহত হয়েছেন।

শনিবার তিনটি রকেট ঘাঁটিটিতে আঘাত হানে বলে ইরাকের নিরাপত্তা কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

তাৎক্ষণিকভাবে কোনো গোষ্ঠী হামলার দায় স্বীকার করেননি।

এই নিয়ে এক সপ্তাহেরও কম সময়ের মধ্যে ইরাকে মার্কিন সৈন্য বা সামরিক ঠিকাদারদের অবস্থান নেওয়া দ্বিতীয় আরেকটি ঘাঁটিতে রকেট হামলা হল।

এর আগে গত সোমবার রাতে ইরাকের কুর্দি অধ্যুষিত উত্তরাঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্রের কর্তৃত্বাধীন একটি সামরিক ঘাঁটিতে রকেট হামলা হয়। এতে বেসামরিক একজন মার্কিন ঠিকাদার নিহত ও আরও পাঁচ জন আহত হন। আহতদের মধ্যে মার্কিন সামরিক বাহিনীর একজন সদস্যও রয়েছেন।

সোমবারের ওই হামলাটি প্রায় এক বছরের মধ্যে ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন বাহিনীর ওপর চালানো সবচেয়ে প্রাণঘাতী হামলা ছিল।

‘শরিয়া আওলিয়া আল-দাম’ নামের একটি গোষ্ঠী কুর্দিস্তানের মার্কিন কর্তৃত্বাধীন ওই ঘাঁটিতে হামলার দায় স্বীকার করে। তারা ইরাকে ‘আমেরিকার দখলদারিত্বের’ ওপর হামলা চালিয়েছে বলে দাবি করলেও নিজেদের দাবির পক্ষে কোনো প্রমাণ সরবরাহ করেনি।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, ইরাকে মার্কিন বাহিনী ও তাদের ইরাকি ও কুর্দি মিত্রদের সঙ্গে ইরানের সমর্থনপুষ্ট মিলিশিয়া বাহিনীগুলোর উত্তেজনা উত্তরোত্তর বাড়ছে, তার মধ্যেই এসব হামলার ঘটনা ঘটল।

কয়েকজন ইরাকি কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সাম্প্রতিক মাসগুলোতে ইরানের সঙ্গে সম্পর্ক আছে এমন কয়েকটি গোষ্ঠী জোট বাহিনী, বাহিনীর জন্য কাজ করা ঠিকাদার ও মার্কিন স্থাপনার ওপর চালানো অনেকগুলো রকেট ও রাস্তার পাশে পেতে রাখা বোমা হামলার দায় স্বীকার করেছে।

এর আগে গত বছরের মার্চে জোট বাহিনীর ওপর চালানো সর্বশেষ প্রাণঘাতী হামলায় এক ব্রিটিশ ও দুই মার্কিন সামরিক সদস্য নিহত হয়েছিল।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য