শিক্ষক সল্পতার কারনে জয়পুরহাটের পাঁচবিবি লাল বিহারী পাইলট (এল.বি.পি) সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম ব্যহত হচ্ছে। ২৫জন সহকারী শিক্ষকের পদ থাকলেও কর্মরত আছেন ১৩ জন শিক্ষক। গত ২বছর ধরে শিক্ষক স্বল্পতা চলছে। ১৯৪০ সালে স্থাপিত বিদ্যালয়টি ১৯৮৭ সালে নভেম্বর মাসে সরকারি করন করা হয়। সরকারি হওয়ার পর থেকে সহকারি প্রধান শিক্ষক পদায়ন করা হয়নি। ২০০৫সাল থেকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দিয়ে বিদ্যালয়ের কাজ চালানো হচ্ছে। প্রধান শিক্ষক ছাড়া ২৫জন সহকারী শিক্ষকের পদ রয়েছে। বর্তমানে ১৩ জন শিক্ষক কর্মরত আছেন । বিদ্যালয়ে গণি ও বাংলায় ৩জন, ইংরেজীতে ২জন, সমাজ বিজ্ঞান, জীব বিজ্ঞান, ব্যবসায় শিক্ষা ও চারুকলায় একজন করে শিক্ষক নেই। প্রয়োজনীয় শিক্ষক না থাকায় বিদ্যালয়ে পড়াশুনার বিঘœ ঘটছে বলে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা অভিযোগ করেছেন। বিজ্ঞান বিভাগের দশম শ্রেণী ছাত্র কৌশিক চক্রবর্তী একই বিভাগের নবম শ্রেণীর আবরার হাসিন তামিম ও জান্নাতুল ফেরদৌস অভিযোগ করেন বিদ্যালয়ে তিন জন অংক শিক্ষকের এক জনও নেই। বিজ্ঞানের অন্য বিষয়ের শিক্ষক দিয়ে অংকের ক্লাস চালানো হয়। নবম শ্রেনীর মাজাহারুল ইসলাম সিয়াম জানায় বিদ্যালয়ে চারুকলার শিক্ষকের পদ থাকলেও শিক্ষক অভাবে ক্লাস হয়না। বর্তমানে এ বিদ্যালয়ে ছাত্র সংখ্যা ছয় শতাধিক। জেলা শিক্ষা অফিসার আজিজুল হকের সাথে শিক্ষক না থাকা সম্পর্কে কথা বললে তিনি জনান, উপজেলা পর্যায় থেকে জেলা ও বিভাগে সুযোগ সুবিধা বেশী হওয়ায় উপজেলা পর্যায়ে কোন শিক্ষক আসতে চায়না। শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হলেও কিছু দিনের মধ্যে তারা তদবির করে সুবিধা জনক স্থানে চলে যান। বিদ্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম জানান, গণিতের শিক্ষক না থাকায় বিজ্ঞানের শিক্ষক দিয়ে অংকের ক্লাস চালানো হয়। বিদ্যালয়ের খালি পদে শিক্ষক নিয়োগের ব্যপারে প্রতিমাসে উর্ধতন কর্তৃপক্ষের বরাবরে পাঠিয়েও কোন সুফল পাওয়া যায়নি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য