দিনাজপুর ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টিকা নিতে আসা মানুষের উপচেপড়া ভিড়

দিনাজপুর

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে গত দুই সপ্তাহ থেকে নতুন কোন ব্যাক্তি করোনায় আক্রান্ত হয়নি। পৌর মেয়র আলহাজ¦ মাহমুদ আলম লিটনসহ সমাজের বিশিষ্ট ব্যাক্তিরা নিয়েছে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ভ্যাকসিন (টিকা)।

শনিবার সকাল ১০ টায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টিকাদান কেন্দ্রে সাধারণ মানুষের সাথে লাইনে দাড়িয়ে তিনি করেনা ভাইরাস প্রতিরোধের টিকা গ্রহন করেন।

পৌর মেয়র আলহ্জ¦ মাহমুদ আলম লিটন বিজয়ের চিহ্ন দেখিয়ে বলেন এই টিকা সহজ ও নিরাপদ, এই জন্য তিনি বৈশিক প্রাদুর্ভাব করোনার ভাইরাস প্রতিরোধে সকলকে টিকা গ্রহনের আহবান জানান।

এসময় টিকা নিতে আসা তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির ফুলবাড়ী শাখার আহবায়ক সৈয়দ সাইফুল ইসলাম, এনজিও ব্যাক্তিত্ব তোজাম্মেল হক বাবলু, এ্যাসোসিয়েশন ফর ডিজএ্যাবল্ড এডিডি এর নির্বাহী পরিচালক ডাঃ আহাদুজ্জামান চৌধুরী, ফুলবাড়ী উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি প্রভাষক আবু শহীদ, ফুলবাড়ী থানা প্রেসক্লাবের সভাপতি আফজাল হোসেন, উপজেলা প্রেসক্লাবের সিনিয়র সাংবাদিক রজব আলী, উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাছান উজ্জলসহ বিভিন্ন গন্যমান্য ব্যাক্তিগণ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সকাল থেকে সন্ধা পর্যন্ত করোনা প্রতিরোধ টিকা নিতে আসা সমাজের বিভিন্ন স্থরের মানুষের উপচেপড়া ভিড় জমেছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সুত্রে জানা গেছে প্রথম দফায় এই উপজেলায় চার হাজার ব্যাক্তিকে টিকা দেয়ার লক্ষ মাত্রা নিয়ে সারা দেশের সাথে ৭ ফেব্রুয়ারী থেকে টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়।

শুরু থেকে শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারী) পর্যন্ত এক সপ্তাহের ব্যবধানে সাড়ে ৬শ ব্যাক্তিকে করোনা প্রতিরোধ টিকা দেয়া হয়েছে, এদের মধ্যে জনপ্রতিনিধি, উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারী, আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যসহ কর্মকর্তা, সাংবাদিক, ব্যবস্যায়ী ও রাজনৈতিক ব্যাক্তিসহ সমাজের বিভিন্ন স্তরের জনসাধারণ রয়েছে। এছাড়া টিকা নিতে ইতোমধ্যে রেজিষ্ট্রেশন করেছে দুই হাজারের অধিক ব্যাক্তি।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মশিউর রহমান বলেন চলতি ২০২১ সালের ২৯ জানুয়ারীর পর থেকে আর কোন ব্যাক্তি করোনায় আক্রান্ত হয়নি। ফলে এই উপজেলায় গত দুই সপ্তাহ থেকে শূন্য রয়েছে করোনা রোগী।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মশিউর রহমান আরো বলেন গত ২০২০ সালের ১৪ এপ্রিল দৌলতপুর ইউনিয়নের মধ্যম পাড়া গ্রামের এনামুল হক ঢাকা নারায়নগঞ্জ থেকে ফিরার পর প্রথম করোনায় আক্রান্ত হয়, এরপর চলতি ২০২১ সালের সালের ২৯ জানুয়ারী পর্যন্ত এই উপজেলায় মোট ১৭৬জন করোনায় আক্রান্ত হয়, এদের মধ্যে ৮জনের মৃত্যু হয়, বাঁকি ১৬৮জন সুস্থ হয়ে উঠে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য