লালমনিরহাটে নৌকার নির্বাচনী অফিস ভাংচুর, বিএনপি’র ২ নেতা গ্রেফতার

রংপুর বিভাগ

লালমনিরহাট সদর পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী কার্যালয়ে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় দুই শতাধিক বিএনপি’র নেতাকর্মীকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছে নৌকা সমর্থক শফিকুল ইসলাম দিলু। এ ঘটনায় দুই বিএনপি নেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার(১১ ফেব্রুয়ারি) দুপরে সদর থানার ওসি শাহা আলম গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এর আগে সদর পৌরসভার নামাটারী ও শহরের মিশনমোড় এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, পৌর ৯নং ওয়ার্ড বিএনপি’র সভাপতি আলী হোসেন ওরফে মাছুয়া আলী ও পৌর যুবদলের যুগ্ন আহ্বায়ক সাইদুল ইসলাম।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, লালমনিরহাট পৌরসভা নির্বাচনে পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মোফাজ্জল হোসেন নৌকা প্রতীকে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। নির্বাচনী প্রচার প্রচারণায় পৌরসভার বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় সকল প্রার্থীর নির্বাচনী কার্যালয় রয়েছে। গত মঙ্গলবার(০৯ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ১০টার দিকে লালমনিরহাট পৌরসভার নয়ারহাট এলাকার নির্বাচনী কার্যালয়ে হামলা চলিয়ে দুর্বৃত্তরা চেয়ার টেবিল ভাঙচুর করে অগ্নিসংযোগ করে। পরে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণ আনেন।

এ ঘটনায় বুধবার(১০ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় নৌকা সমর্থক শফিকুল ইসলাম দিলু বাদি হয়ে দুই শতাধিক বিএনপি নেতাকর্মীদের নামে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে এজাহার ভুক্ত আসামি আলী হোসেন ওরফে মাছুয়া আলীকে গ্রেফতার করে। এছাড়াও পৌর যুবদলের যুগ্ন আহ্বায়ক সাইদুল ইসলামকে ভোরে গ্রেফতার করে পুলিশ।

লালমনিরহাট সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) শাহ আলম বলেন, চেয়ার টেবিল ভাঙচুর করে অগ্নিসংযোগ ঘটনায় দুই আসামীকে গ্রেফতার করে লালমনিরহাট জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। এজাহারভুক্ত বাকি আসামীদের গ্রেফতার প্রচেষ্টা চলছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য