লালমনিরহাটে অবৈধ ইটভাটা গুঁড়িয়ে দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত

রংপুর বিভাগ

লালমনিরহাট জেলার পৌরসভা এলাকায় পূর্ব সাপ্টানা গ্রামে দুটি অবৈধ ইটভাটা গুঁড়িয়ে দিয়েছে র‌্যাব, পুলিশ ও রংপুর পরিবেশ অধিদপ্তরের ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় দুই ইটভাটা মালিককে ১১ লক্ষ টাকা জরিমানা করেছন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার (১০ফেব্রুয়ারি) দুপুরে র‌্যাব-১৩ রংপুর ক্যাম্পের মিডিয়া কর্মকর্তা (এসপি) সামুয়েল সাংমার পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এ অভিযানে সহযোগিতা করেন র‌্যাব, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা।

এর আগে মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বিকালে ঢাকা জেলার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রোজিনা আক্তারের ভ্রাম্যমাণ আদালতের নেতৃত্বে ওই দুটি অবৈধ ইটভাটা গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়।

ঢাকা জেলার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রোজিনা আক্তার জানান, দীর্ঘদিন থেকেই দুটি পৌর এলাকার ভেতরে এসব ইটভাটা অবৈধভাবে চলছিল। তাদের বিভিন্ন সময় সর্তক করা হলেও কয়েক’শ গজের মধ্যে পাশাপাশি ইটভাটা পরিচালনা করেন তারা। এ ছাড়া ওই দুটো ইট ভাটার জেলা পরিবেশ অধিদফতরের ছাড়পত্র ও কোনও কাগজপত্র নেই। তাই অবৈধ ইটভাটা গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। গুঁড়িয়ে দেওয়া ইটভাটা দুটির মালিককে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে সব ধরনের যন্ত্রপাতি ও স্থাপনা সরিয়ে নিতে বলা হয়েছে।

এছাড়াও অবৈধভাবে এসব ইট ভাঁটা পরিচালনা করার অপরাধে মেসার্স এলএমবি ব্রিকস এর ম্যানেজার মোঃ সেফাউল ইসলাম (৪২) ৫ লক্ষ টাকা ও মেসার্স সান ব্রিকস এর মালিক আলহাজ¦ মোঃ এমদাদুল হক (৬০)কে ৬ লক্ষ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক মো.আবু জাফর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, দির্ঘদিন থেকে দুটি পৌর এলাকার ভেতরে মেসার্স এলএমবি ব্রিকস ও মেসার্স সান ব্রিকস ইট ভাঁটা দুটি অবৈধবাবে পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র ছাড়াই ব্যবসা করে আসছিল। তাই পরিবেশ অধিদপ্তরের ভ্রাম্যমান আদালত অবৈধ ইটভাটা দুটি গুঁড়িয়ে দিয়েছন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য