গাইবান্ধার ফুলছড়িতে আ’লীগ নেতা নিহত ইউপি সদস্যের লাশ নিয়ে এলাকাবাসীর বিক্ষোভ

রংপুর বিভাগ

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার ফুলছড়িতে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত সাবেক ইউপি সদস্য লাল মিয়া সরকারের লাশ নিয়ে উপজেলা সদরে এলাকাবাসী বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। তারা হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার ও শাস্তির দাবী জানায়।

গাইবান্ধা জেলা হাসপাতালে ময়না তদন্ত শেষে বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে অ্যাম্বুলেন্সে করে নিহত সাবেক ইউপি সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা লাল মিয়া সরকারের লাশ ফুলছড়ি উপজেলা সদরে এসে পৌঁছলে বিক্ষোভে ফেটে পড়ে নিহতের স্বজন ও এলাকাবাসী। বিক্ষুব্ধ শতশত লোকের অংশগ্রহণে বিক্ষোভ মিছিলটি উপজেলা সদরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে ফুলছড়ি থানা চত্বরে গিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে।

তারা নিহত লাল মিয়া সরকারের হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার ও শাস্তির দাবী জানায়। এসময় বক্তব্য রাখেন, ফুলছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জিএম সেলিম পারভেজ, নিহত লাল মিয়ার পুত্র মুরশিদ আলী। পরে বিক্ষুব্ধ লোকজনকে শান্ত থাকার পরামর্শ ও হত্যার সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আশ্বাস দিয়ে বক্তব্য রাখেন ফুলছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কাওছার আলী। তিনি বলেন, ইতিমধ্যে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে দুইজনকে আটক করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

উল্লেখ্য; ফুলছড়ি উপজেলার ফজলুপুর ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য লাল মিয়া সরকার উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা গত মঙ্গলবার সকালে নিজ বাড়ি থেকে উপজেলা সদরে যাওয়ার সময় উড়িয়া ইউনিয়নের সাদেক খাঁ বাজারে পৌঁছলে প্রতিপক্ষ এনায়েত হোসেন ও সাদেক খাঁ’র কিছু লোক পূর্বপরিকল্পিত ভাবে তার উপর হামলা চালায়। এসময় তাদের উপর্যুপরি ছুরিকাঘাতে লাল মিয়া সরকারের শরীর ক্ষতবিক্ষত হয়। স্থানীয়রা তাকে আশংকাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে গাইবান্ধা জেলা হাসপাতালে নেয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে বিকেলে তিনি মারা যান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য