চীনের কথিত ‘পুনঃশিক্ষণ’ শিবিরগুলোতে সংখ্যালঘু উইঘুর নারীরা কাঠামোগতভাবে ধর্ষণ এবং নিপীড়নের শিকার হওয়ার খবর সামনে আসায় বেইজিংকে সতর্ক করেছে যুক্তরাষ্ট্র। চীনকে এজন্য মারাত্মক পরিণতি ভোগ করতে হবে বলে জানিয়েছে ওয়াশিংটন। তবে এই খবরকে বুধবার ভুয়া বলে দাবি করেছে চীন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

চীনা শিবিরগুলোতে এক সময়ে বন্দি থাকা কয়েকজন নারী এবং এক রক্ষীর সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে গত বুধবার একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বিবিসি। ওই প্রতিবেদনে উঠে এসেছে এসব শিবিরে উইঘুর নারীরা কাঠামোগতভাবে ধর্ষণ ও নিপীড়নের শিকার হচ্ছে।

ওই প্রতিবেদন প্রকাশের পর এক প্রতিক্রিয়ায় মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর একে গভীর হতাশাজনক আখ্যা দিয়েছে। পররাষ্ট্র দফতরের এক মুখপাত্র বলেন, ‘ভুক্তভোগীদের সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে অন্তবর্তী শিবিরে জিনজিয়াংয়ে উইঘুর এবং অন্য মুসলমান নারীদের বিরুদ্ধে কাঠামোগতভাবে ধর্ষণ, যৌন নিপীড়নের খবরে আমরা গভীরভাবে হতাশ। এসব সহিংসতা বিবেককে নাড়া দেয় আর অবশ্যই এর জন্য মারাত্মক পরিণতি ভোগ করতে হবে।’

অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ম্যারিজ পায়ানও প্রতিবেদনটি নিয়ে মন্তব্য করেছেন। তিনি অবিলম্বে জাতিসংঘের তদন্তকারীদের ওই অঞ্চলে পরিদর্শনের অনুমতি দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

মানবাধিকার গ্রুপগুলো দীর্ঘ দিন ধরে জিনজিয়াংয়ে উইঘুর মুসলমানদের ওপর চীনা নিপীড়ন নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে আসছে। তবে এসব অভিযোগ সবসময়ই অস্বীকার করে আসছে চীন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য