দিনাজপুর সংবাদাতাঃ আগামী ৭ ফেব্রুয়ারীর আগেই দিনাজপুরে প্রথম ধাপে জেলায় ৯৬ হাজার ডোজ টিকা এসে পৌঁছাবে। সকল প্রস্তুতি নিয়ে রাখা হয়েছে। সরকারি নির্দেশনা পাওয়া মাত্রই করোনাভাইরাসের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হবে বলে জানিয়েছেন জেলার সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুছ। প্রথম ধাপে করোনা মোকাবিলায় সম্মুখযোদ্ধাদের টিকা দেয়া হবে। টিকাদানের জন্য জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ শেষ নির্দেশনা অনুয়ায়ী চিকিৎসক ও টিকাদান কর্মী ও স্বেচ্ছাসেবকদের প্রশিক্ষণ দেয়ার জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

বুধবার (২৭ জানুয়ারি) দুপুরে দিনাজপুর জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুছ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, জেলায় এখন পর্যন্ত মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৪ হাজার ৬৬৫ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ১০০ জন। সুস্থ্য হয়েছেন ৪ হাজার ৫১০ জন। বর্তমান রোগী ৫৫ জন। এর মধ্যে হাসাপাতালে ভর্তি ১৬ জন ও হোম আইসোলেশনে রয়েছেন ৩৯ জন। সব কিছু ঠিক থাকলে আগামী ৭ ফেব্রুয়ারীর মধ্যেই জেলায় সরকারিভাবে টিকাদান শুরু হবে। তার আগেই ৯ হাজার ৬০০ ভায়েল অথ্যাৎ ৯৬ হাজার ডোজ টিকা এসে পৌঁছাবে। এরপর সেগুলো জেলার ইপিআই সেন্টারের কোল্ড স্টোরে সংরক্ষণ করা হবে। জেলায় মেডিকেল কলেজ হাসাপাতাল, জেনারেল হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোতে টিকা দেয়া হবে।

টিকা প্রদানের জন্য চিকিৎসক ও টিকাদান কর্মী ও স্বেচ্ছাসেবকদের প্রশিক্ষণের প্রস্তুতি চলছে। আর টিকাদানের জন্য দিনাজপুর জেনারেল হাসাপাতালে আটটি, দিনাজপুরের এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে ৪ টি ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোতে দুইটি করে টিম গঠন করা হয়েছে। প্রতিটি টিমে দুইজন করে টিকাদান কর্মী ও চারজন করে স্বেচ্ছাসেবক রয়েছেন।

সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুছ বলেন, টিকাদানের জন্য আমাদের সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন রয়েছে। কেন্দ্র থেকে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন আপডেট আসছে। আমরা সে অনুয়ায়ী নিজেদেরকে প্রস্তুত করছি। টিকা আসার পর সেগুলো সংরক্ষণ করার জন্য সংরক্ষণাগারও প্রস্তুত করা হয়েছে। নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য বিদ্যুৎ বিভাগ কাজ করছে।

টিকা গ্রহণের জন্য অনলাইনে নিবন্ধন করতে হবে। নিবন্ধন সম্পন্ন করার পর টিকাগ্রহীতার মুঠোফোনে ক্ষুদেবার্তার মাধ্যমে জানিয়ে দেয়া হবে, তিনি কবে-কোথায় টিকা গ্রহণ করবেন। আশা করছি ৭ ফেব্রুয়ারীর মধ্যেই করোনা মোকাবিলায় সম্মুখযোদ্ধাদের টিকা প্রদানের মাধ্যমে টিকাদান কার্জক্রম শুরু হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য