এই শীতের রুক্ষ দিনে আমাদের চুল অল্পতেই শুষ্ক হয়ে যায়। চেষ্টা করেও এই সময় চুল নরম ও মোলায়েম রাখা যায় না। তাই শীতের সময় চুলের যত্নে একটু বেশি সতর্ক হওয়া জরুরি। তবে শীতে চুলের যত্ন নিতে গিয়ে উল্টে ক্ষতি করে ফেলছেন না তো ? এটা কিন্তু ভাবনার বিষয়। কারণ, শীত আমাদের একটু অলস করে দেয়। তাই এই সময় ইচ্ছা থাকলেও চুলের বেশি যত্ন নেওয়া সবার পক্ষে সম্ভব হয় না। এই শীতে কীভাবে চুলের যত্ন নেবার রইল কিছু টিপস।

১. যতই ঠান্ডা পড়ুক, চুলে শ্যাম্পু করা বন্ধ করলে চলবে না। কিম্বা গরম জলে মাথা ভিজিয়ে স্নান করতে ভালো লাগছে বলে অনেকটা সময় গরম জলের শাওয়ারের নীচে দাঁড়িয়ে থাকবেন না। দুটোই কিন্তু চুলের পক্ষে সমান ক্ষতিকর। আবার বেশি শ্যাম্পু করলে চুলের প্রাকৃতিক তেল হারিয়ে গিয়ে চুলকে রুক্ষ করে তুলবে। তেমনি বেশিদিন শ্যাম্পু করে না থাকলে চুলের গোড়ায় ময়লা জমে চিটচিটে দেখতে লাগবে এবং ড্যানড্রাফ হবে।

২. চুল ভালো রাখতে গেলে চুলে তেল দিতেই হবে। মনে রাখবেন – তেল হল চুলের খাদ্য। যারা চুলে নারকেল তেল ব্যবহার করেন, তারা শীতকালে তেল জমে গিয়েছে – এই কারণ দেখিয়ে অনেক সময় চুলে তেল লাগান না। কিন্তু এটা করলে চলবে না। তাই তেল একটু গরম করে নিয়ে আপনার চাম্পি সেশন উপভোগ করুন।

৩. শীতকালে শ্যাম্পুর পর চুলে কন্ডিশনার লাগাতেই হবে। শ্যাম্পুর পর কন্ডিশনার না লাগালে চুল রুক্ষ ও শুষ্ক হয়ে যাবে। এতে চুলের গোড়া ফেটে যেতে পারে। বরং শীতকালে চুল নরম রাখতে ডিপ কন্ডিশনিং জরুরি। কন্ডিশনার লাগিয়ে তা বেশ কয়েক মিনিট চুলে লাগিয়ে রেখে তারপর ধুয়ে ফেলুন।

এই শীতে চুলের যত্ন৪. ভিজে চুল আঁচড়ানো কিন্তু একদম ঠিক নয়। শীতকালে চুল শুকোতে সময় নেয়। তাড়া থাকলে আমরা ভিজে চুল আঁচড়ে নিয়েই অনেক সময় বেরিয়ে যাই। এতে কিন্তু চুলের ক্ষতি হয়। ভিজে চুলে বেশি স্পর্শকাতর হওয়ায় সহজেই ঝরে যেতে পারে।

৫. শীতকালে চুল ভিজে থাকলে কষ্ট হয় বলে হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার অনেকেই করে থাকি। কিন্তু গরম হাওয়া দিয়ে চুলে নানারকম স্টাইল করা ঠিক নয়। এতে চুলের অত্যন্ত ক্ষতি হয়।

৬. সোয়েটার খোলা ও পরার সময় উলের সঙ্গে ঘসায় অনেক চুল ওঠে যায়। তাই খেয়াল রাখবেন চুল ভিজে থাকলে সেই সময় সোয়েটার পরবেন না। আর পারলে গলায় একটা ভালো স্কার্ফ বেঁধে নেবেন। তাহলে সোয়েটারের থেকে চুলকে অনেকটা রক্ষা করবে ওই স্কার্ফ।

সবাই ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। করোনাকালীন স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা গ্রহণ করে নিজে ভালো থাকুন এবং পরিবারকে নিরাপদ রাখুন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য