শীতকালে ত্বক শুষ্ক হয় না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া মুশকিল। ত্বককে সুস্থ ও সুন্দর রাখার জন্য কেবলমাত্র ক্রিম, লোশন ও তেল ব্যবহার করলেই হবে না। ভেতর থেকে ঠিক রাখার জন্য প্রয়োজন পুষ্টিকর খাবার। শীতে প্রতিদিন দুটো করে আমলকি খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন বিশেষজ্ঞরা। আমলকিতে হাজারও গুণ রয়েছে যা শরীরের বিভিন্ন উপকারে আসে।

নিয়মিত আমলকি খাওয়ার ফলে চুলের জেল্লা বৃদ্ধি পায়, রুক্ষতা কমে, ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ে, পেটের গোলযোগ দূর হয় এবং চাঙা হয়ে উঠে শরীর। বিশেষজ্ঞরা এ জন্য রোজ সকালে কাঁচা আমলকি বা সেদ্ধ আমলকি খাওয়ার কথা বলে থাকেন। আমলকি চুলের গোঁড়া মজবুত করে চুলকে খুস্কিমুক্ত করে।

আমলকিতে থাকা বিভিন্ন উপাদান রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। এতে থাকা ভিটামিন-সি এবং অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট বিপাকের হার বৃদ্ধি করে। ব্যাক্টেরিয়াল আক্রমণের জন্য সর্দি-কাশির সমস্যা দূর করতে কার্যকরী আমলকি। এছাড়াও এতে প্রচুর পরিমাণে ক্রোমিয়াম থাকার জন্য ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে ভূমিকা রাখে। ডায়েটে ওষুধের পাশাপাশি প্রতিদিন দুটো করে আমলকি রাখতে পারেন। এতে অতিরিক্ত ওজন কমবে এবং কোষ্ঠকাঠিন্য অ্যাসিডিটি দূর ¬¬করে।

আমলকিতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-সি রয়েছে। অন্যান্য ফলমূলের থেকে তুলনামূলক অনেক বেশি ভিটামিন-সি এই ফলে। শরীরের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধির পাশাপাশি ব্যথা-বেদনা দূর করে আমলকি। এক গ্লাস পানিতে দুই চা চামচ বেটে নেওয়া আমলকি, দুই চা চামচ মধু দিয়ে নিয়মিত খেলে সর্দি কাশিতে ভালো ফল পাওয়া যায়। এছাড়াও ত্বকের জন্যে আমলকি অনেক উপকারী। সূত্র : জিনিউজ

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য