কোভিড-১৯ মহামারীর উৎস নিয়ে তদন্ত শুরু করতে চীনের উহান শহরে হাজির হয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) একটি বিশেষজ্ঞ দল।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও বেইজিংয়ের মধ্যে কয়েক মাস ধরে আলোচনার পর দীর্ঘ প্রতীক্ষিত তদন্তটি শুরু হচ্ছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

বিজ্ঞানীদের ১০ জনের একটি দল উহানে প্রাথমিক প্রাদুর্ভাবের সঙ্গে সম্পর্কিত সিফুড মার্কেট, হাসপাতাল ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের লোকজনের সাক্ষাৎকার গ্রহণের মাধ্যমে তদন্ত শুরু করবে।

২০১৯ সালের শেষ দিকে উহানে কোভিড-১৯ প্রথম শনাক্ত হয়েছিল। এখন শহরটির জীবনযাত্রা প্রায় স্বাভাবিক হয়ে এসেছে। তদন্তকারী দল বৃহস্পতিবার সকালে (স্থানীয় সময়) এখানে এসে পৌঁছায়।

এখানে দুই সপ্তাহ কোয়ারেন্টিনে থাকার পর তারা তাদের অনুসন্ধান শুরু করবেন। এই তদন্ত চীনের কর্মকর্তাদের দেওয়া নমুনা ও প্রমাণের ওপর নির্ভর করবে।

প্রাণী থেকে মানুষে সংবাহিত হয়ে মহামারীটি শুরু হয়েছিল কিনা তা তদন্ত করে দেখবে বিশেষজ্ঞ দল।

চলতি মাসের প্রথমদিকে ডব্লিউএইচও জানিয়েছিল, চীন তাদের তদন্তকারীদের প্রবেশ করতে দেয়নি।

তখন তদন্তকারী দলটির এক সদস্যকে চীন থেকে ফেরত পাঠানো হয়েছিল ও আরেকজন ট্র্যানজিটে তৃতীয় আরেকটি দেশে আটকা পড়েছিলেন।

ওই সময় চীন ঘটনাটিকে ভুল বুঝাবুঝি আখ্যায়িত করে তদন্ত আয়োজনের আলোচনা তখনও চলছিল বলে জানিয়েছিল।

ডব্লিউএইচও-র গ্লোবাল আউটব্রেক এন্ড রেসপন্স ইউনিটের চেয়ারম্যান প্রফেসর ডেল ফিশার বিবিসিকে বলেছেন, বিশ্ব উহানে তাদের বিশেষজ্ঞদের এই অনুসন্ধানটিকে একটি বৈজ্ঞানিক পরিদর্শন হিসেবে বিবেচনা করবে বলে তিনি আশা করেন।

“এটি রাজনীতি বা দোষ দেওয়ার বিষয় নয় বরং বৈজ্ঞানিক অনুসন্ধিৎসার শেষ পর্যায়ে যাওয়ার প্রচেষ্টা,” বলেছেন তিনি।

তিনি জানান, বিশ্বের অধিকাংশ বৈজ্ঞানিক ভাইরাসটিকে একটি ‘প্রাকৃতিক ঘটনা’ বলে মনে করেন।

ডব্লিউএইচও এর বিশেষজ্ঞ দল যেদিন উহানে উপস্থিত হয়েছেন কাকতালীয়ভাবে সেদিন, বৃহস্পতিবার চীন আট মাস পর কোভিড-১৯ এ একজনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য