আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে পরিচালিত ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে ইটভাটা গুঁড়িয়ে দেয়ায় কর্মরত কর্মহীন বেকার ইট প্রস্তুতকারীদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহনে এক মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল ১১টা হতে প্রায় ঘন্টাব্যাপী পৌর শহরের স্থানীয় চৌমাথা মোড়ে ইট প্রস্তুতকারী শ্রমিক ইউনিয়নের আয়োজনে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে বিপুল সংখ্যক ভূক্তভোগী এ কর্মসূচিতে অংশ নেয়।

এতে বক্তব্য রাখেন, ইট প্রস্তুতকারী শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সাদেক মিয়া, সাধারণ শ্রমিক রেজাউল করিম, ফিরোজ মিয়া, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক মোটরশ্রমিক নেতা রেজানুর রহমান ডিপটি, প্রেস ক্লাব সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম রতন, উপজেলা শ্রমিকলীগ সভাপতি আবুল কালাম আজাদ সাবু, সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুজ্জামান প্রান্ত ও মিজানুর রহমান প্রমুখ।

তারা বলেন, দেশে করোনা মহামারীর চলমান সময় শ্রমিকদের হাতে কাজ না থাকায় তারা স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ পূর্বক খেয়ে না খেয়ে কোন রকমে দিনাতিপাত করছেন। চলতি মৌসুতে ইট প্রস্তুতের কাজ করে তারা পরিবারের সদস্যদের দু’বেলা-দু’মুঠো অন্নের সংস্থান করছেন।

এমনি একসময় পরিবেশ দূষণের অপরাধে পলাশবাড়ী এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালত অভিযানে একের পর এক চলমান ইটভাটা গুঁড়িয়ে দেয়ায় তারা কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। ইটভাটা শ্রমিকদের কর্মসংস্থানের বিঘœ না ঘটিয়ে বরং আরো অব্যাহত সুযোগ সৃষ্টি করণে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীসহ দায়িত্বশীল সংশ্লিষ্ট ঊর্ধতন কর্তৃপক্ষের যথাযথ জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

উল্লেখ্য; গত ১০ জানুয়ারি পলাশবাড়ীর বিভিন্ন স্থানে অবৈধ ইটভাটার বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করেন পরিবেশ অধিদপ্তর ও গাইবান্ধা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এস.এম ফয়েজ উদ্দিন। এসময় ভাটার লাইসেন্স ও প্রয়োজনীয় পরিবেশ ছাড়পত্র বিহীন এবং অনুমোদনহীন এলাকায় ইটভাটা স্থাপন এবং পরিচালনা করার অপরাধে তিনটি ইটভাটা গুঁড়িয়ে দেয়া হয়। এছাড়া ১১টি ইটভাটার বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমান আদালত ১৬ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য