দিনাজপুর সংবাদাতাঃ উত্তরের হিমালয় ঘেঁষে দিনাজপুরে জেলায় শীত জেঁকে বসছে। এতে জবুথবু হয়ে পড়েছে পুরো জেলাবাসী। থেমে থেমে হিমেল হাওয়া আর শৈত্যপ্রবাহে বিশেষ করে খেটে খাওয়া হত দারিদ্র ও ছিন্নমূল মানুষকে কাহিল করে দিয়েছে।

মৃদু শৈত্যপ্রবাহ আর নিম্ন শ্রেনির খেটে খাওয়া মানুষের নাজেহাল অবস্থা। মানুষ ঘর থেকে বাহির হতে পারছে না। শীত নিবারণে কম দামী গরম কাপরের দোকান গুলোতে মানুষের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা যাচ্ছে। ভোর থেকে সুর্যের মুখ দেখা না যাওয়া পর্যন্ত ঘন কুয়াশার চাদরে ঢাকা থাকছে পুরো অঞ্চল। যানবাহন চলা চলে বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে।

সাধারণতো দিনের বেলায় সুর্যের তাপ কিছুটা থাকলেও সন্ধার পা থেকে শুরু হচ্ছে শৈত প্রবাহ। এতে বিশেষ করে দিনমজুর, রিকশা,ভ্যানচালকদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। কনকনে শীতে বৃদ্ধ ও শিশুদের মাঝে ডায়রিয়াসহ ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত হচ্ছে।

ঘন-কুয়াশার কারণে মহাসড়কে দুরপাল্লার যানবাহনগুলো দিনের বেলায় হেডলাইট জ্বালিয়ে চলাচল করতে দেখা গেছে। শীতে ছিন্নমূল মানুষগুলো মহাসড়কের এবং আঞ্চলিকের পাশে খড়কুটো জ্বালিয়ে আগুন পোহাতে দেখা যায়।

এছাড়া ও শীতে প্রভাবেআলু,বেগুন,মরিচ,সরিষাসহ বোরো ধানের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা করছে কৃষক -কৃষাণীরা। জেলায় সরকারি বে-সরকারি সংস্থা কতৃক শীত বস্ত্র বিতরণ অবযাহত রয়েছে

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য