সম্প্রতি ব্রিটেনে ছড়িয়ে পড়া নতুন ধরনের করোনাভাইরাস আক্রান্ত কয়েকজন ব্যক্তিকে ফ্রান্স ও জাপানে চিহ্নিত করা হয়েছে।

ফ্রান্স নিশ্চিত করেছে যে সেদেশের মধ্যাঞ্চলীয় তুর শহরে সম্প্রতি নতুন ধরণের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এক ব্যক্তিকে চিহ্নিত করা হয়েছে – যে গত ১৯শে ডিসেম্বর লন্ডন থেকে সেখানে এসেছিল।

তার দেহে কোন উপসর্গ দেখা যায়নি, এবং তিনি এখন বাড়িতে আইসোলেশনে আছেন।

সম্প্রতি লন্ডন সহ ইংল্যান্ডের দক্ষিণাঞ্চলে করোনাভাইরাসের এই নতুন এবং অত্যন্ত সংক্রামক জাতটি ছড়িয়ে পড়ে। এটি আগেকার ভাইরাসের চেয়ে আরো বেশি সহজে এবং দ্রুতগতিতে মানুষের মধ্যে ছড়াতে পারে বলে দেখা গেছে।

ফ্রান্সের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে, ওই ব্যক্তি ফরাসী নাগরিক, তবে তিনি ইংল্যান্ডে থাকতেন। গত ২১শে ডিসেম্বর তার করোনাইরাস টেস্ট করা হয়।

শুক্রবার জাপানের কর্তৃপক্ষ জানায়, যুক্তরাজ্য থেকে বিমানে করে জাপানে যাওয়া পাঁচ ব্যক্তির দেহে করোনাইরাসের নতুন ভ্যরিয়েন্ট পাওয়া গেছে।

এরও আগে অস্ট্রেলিয়া, ডেনমার্ক ও নেদারল্যান্ডসে নতুন ধরণের ভাইরাস ছড়ানোর খবর পাওয়া যায়।

এর পর ৪০টিরও বেশি দেশ যুক্তরাজ্যের সাথে বিমান যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়।

করোনাভাইরাসের এই নতুন মিউটেশনটি বেশি সংক্রামক হলেও বিজ্ঞানীরা বলেছেন, এটি অধিকতর বিপজ্জনক এমন কোন প্রমাণ এখনো পাওয়া যায়নি -এবং করোনাভাইরাসের যে টিকা দেয়া শুরু হয়েছে তা এর বিরুদ্ধেও একই রকম কার্যকর হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য