অন্যের শরীরের রক্ত নিয়ে বেঁচে আছে ১১ বছরের রোমানা

দিনাজপুর

দিনাজপুর সংবাদাতাঃ বাঁচতে চায় রোমানা। জন্মের চার মাস পর থ্যালাসামিয়া রোগে আক্রান্ত দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার বেল খুরিয়া গ্রামের রমজান আলীর ১১ বছর বয়সী মেয়ে রোমানা আক্তার। বাবা রমজান আলী পেশায় একজন অটোচালক। অন্যের অটোগাড়ি ভাড়ায় চলান তিনি। সংসারে দুই ছেলে আর এক মেয়ে। গাড়ি ভাড়া দিয়ে সারাদিনে ১৫০ থেকে ২০০ টাকা উপার্জন করেন সে।

সামান্য আয়ে ছেলে-মেয়ে আর স্ত্রীকে নিয়ে সংসার চলে কোন রকম। প্রতি মাসে এক ব্যাগ রক্ত দিতে হয় রোমানার শরীরে। টাকা অভাবে চিকিৎসা করতে পারছেন না হতদরিদ্র বাবা রমজান আলী। বর্তমান ঢাকা পিজি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে রোমানা। ডাক্তার বলেছেন অপারেশন করলে সে সুস্থ হয়ে যাবে। তার অপরেশনের জন্য প্রয়োজন প্রায় ১০ থেকে ১২ লাখ টাকা।

রোমানার বাবা রমজান আলী জানান, আমি অসহায় গরীব মানুষ। জীবনে যা আয় করেছি তা মেয়েকে ভাল করার জন্য শেষ করে ফেলেছি। এখন আমার কোন সম্পদ নেই যা বিক্রয় করে মেয়ের চিকিৎসা করবো। সারাদিন ভাড়ায় অটো চালিয়ে যা পাই তাই দিয়ে সংসার চলে। এতোগুলা টাকা কোথায় পাবো। তাই আমি সমাজের দয়াবান বিত্তবান মানুষের কাছে সাহায্য চাইছি। দয়া করে আপনারা আমার অসহায় মেয়েটির পাশে দাঁড়ান। জন্ম থেকে থ্যালাসামিয়া রোগে ভুগছেন তাদের একমাত্র কন্য রোমানা। প্রতি মাসে এক ব্যাগ রক্ত দিতে হয় রোমানাকে।

জন্মের পর থেকে বাবা রমজান আলীর শরীর থেকে প্রতি মাসে এক ব্যাগ করে রক্ত দিয়ে আসছেন। বিগত ৫ থেকে ৬ বছর যাবৎ স্থানীয় বিনা মুল্যে রক্তদান কেন্দ্র শিবির থেকে রক্ত পেয়ে যাচ্ছে রোমানা। রোমানার শরীরে রক্ত তৈরি হয় না। বহু চিকিৎসা করেও কোন লাভ হয়নি মেয়েটির। দিনে দিনে বড় হয়ে উঠছে মেয়ে, আর ততই চিন্তা বেড়ে যাচ্ছে মেয়েকে নিয়ে তাদের। দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে মেয়ের চিকিৎসা করা হয়েছে, কিন্তু টাকার অভাবে ভাল চিকিৎসা করতে পেড়ে উঠেনি বাবা-মা।

তিনি আরও জানান, বর্তমান মেয়েকে নিয়ে ঢাকা পিজি হাসপাতালে অবস্থান করছেন তিনি। ডাক্তার জানিয়েছেন মেয়েকে ভাল করতে হলে অপারেশন করতে হবে। অপারেশন করতে লাগবে ১০ থেকে ১২ লাখ টাকা। এতোগুলা টাকা আজ কোথায় পাবে রমজান আলী। তাই একমাত্র কন্যাকে বাচাতে দেশবাসীর নিকট সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। যদি কোন হৃদয়বান মানুষ এগিয়ে আসেন তার মেয়েকে আর্থিক সহযোগিতা করতে। সমাজের হৃদয়বান ও বিত্তবান মানুষের সাহায্য পেলে ফিরে পাবে রোমানা তার স্বাভাবিক জীবন।

রোমানাকে সাহায্য করতে চাইলে, বিকাশ নাবার- ০১৭৮১৮১৫৯২৩ এবং কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক হিসাব নাম্বার-৩৫২৬৩১।