অবশেষে দীর্ঘ ৭ বছর পর রংপুরের পীরগজ্ঞ উপজেলার জয়পুর গ্রামের নবম শ্রেনীর ছাত্রীকে ধর্ষন করে শ্বাস রোধ করে হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে সিআইডি। ধর্ষক হাসানুর জামান টেক্কাকে গ্রেফতার করেছে সিআইডি পুলিশ।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে ধর্ষন করে হত্যার কথা স্বীকার করেছে। বুধবার দুপুরে রংপুর নগরীর কেরানী পাড়ায় সিআ্ইডি কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সিআইডির পুলিশ সুপার মিলু মিয়া এসব কথা বলেন।

সিআইডি পুলিশ সুপার বলেন ২০১৪ সালের ১০ এপ্রিল তারিখে পীরগজ্ঞ উপজেলার জয়পুর গ্রামের কালাম মিয়ার নবম শ্রেনীতে পড়-য়া কন্যাকে প্রেমের অভিনয় করে কয়েক দফা ধর্ষন করে তার চাচাতো ভাই হাসিনুর জামান শিপন টেক্কা। এতে ছাত্রীটি গর্ভবর্তী হয়ে পড়ে। বিষয়টি জানাজানি হলে তাকে শ্বাস রোধ করে হত্যা করে আসামি শিপন।

এ ঘটনায় পীরগজ্ঞ থানায় মামলা হলে ৬ বার তদন্তকারী পুলিশ কর্মকর্তা বদল হবার পরেও ঘটনার কোন সুরাহা না হওয়ায় অবশেষে সিআইডিকে মামলার তদন্ত ভার দেয়া হয়। সিআইডি ডিএনএ পরীক্ষার মাধ্যমে নিশ্চিত হয় তার চাচাতো ভাই শিপন এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

এরপর সিআইডি পুলিশ আসামি হাসানুর জামান শিপন ওরফে টেক্কাকে গ্রেফতার করে। প্রাথমিক জ্ঞিাসাবাদে সে ধর্ষন করা এবং শ্বাস রোধ করে হত্যার বিষয়টি স্বীকার করেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য