Bappy Rangpur Photo (1) (Nirbachon Comisonar) 13-05-2014শেষ দফার উপজেলা নির্বাচন সুষ্ঠু করার লক্ষ্যে সেনাবাহিনীর যা যা করা দরকার তাই করবে। স্থানীয় সরকার নির্বাচনে কেউ দলীয় পরিচয় ব্যবহার করলে তার বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার শাহ নেওয়াজ।

মঙ্গলবার দুপুর সোয়া ১২টায় রংপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

আগামী ১৯ মে রংপুর সদর, কাউনিয়া, পীরগাছা ও গঙ্গাচরা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী চেয়ারম্যান, মহিলা ও পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীদের সঙ্গে এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়।

এসময় তিনি বলেন, চরাঞ্চলের যেসব দূর্গম ভোট কেন্দ্র রয়েছে, গোয়েন্দা সংস্থার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে সেখানেও পর্যাপ্ত নিরাপত্তাকর্মী নিয়োগ করা হবে। অতীতে রংপুরে শান্তিপূর্ণ ভোট হয়েছে, এবারও তাই হবে।

রংপুরের জেলা প্রশাসক ফরিদ আহম্মেদের সভাপতিত্বে রংপুর বিভাগীয় পুলিশ কমিশনার হুমায়ুন কবির, ৠাব-১৩ কর্মকর্তা মনোয়ার মাহবুব, পুলিশ সুপার আব্দুর রাজ্জাকসহ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বিভিন্ন বাহিনী এবং প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

চারটি উপজেলায় মোট ভোট কেন্দ্র ২৮৭ টি। যার মধ্যে দূর্গম চরে রয়েছে ১৯টি এবং ভোটার সংখ্যা ৬ লাখ ৫৬ হাজার ৬৯৪ জন।

নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩৫ জন, পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২৪ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১৮ জন প্রার্থী লড়ছেন।

৬ষ্ঠ দফায় আগামী ১৯ মে ১৩টি উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। যে ১৩টি উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে সেগুলো হলো- রংপুরের কাউনিয়া, সদর, গঙ্গাচড়া, পীরগাছা, সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ, বরগুনার তালতলি, রাজবাড়ীর কালুখালী, নারায়ণগঞ্জের বন্দর,গাজীপুরের সদর, টাঙ্গাইলের বাসাইল, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর, কুমিল্লার আদর্শ সদর ও কুমিল্লা সদর দক্ষিণ।

এছাড়াও ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদ শূন্য হওয়ার ওই একই তফসিলে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

৬ষ্ঠ দফা নির্বাচনের মধ্য দিয়ে শেষ হতে যাচ্ছে ৪র্থ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য