ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে নেশার টাকা না পেয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ২২দিন বয়সী সূর্য্য মহন্ত নামে নবজাতক শিশু পুত্রকে হত্যা করেছে, সুভাশ মহন্ত (২৪) নামে এক নেশাখোর পাষন্ড পিতা। একই ঘটনায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত হয়েছে স্ত্রী অনামিকা রানী (২০)।

নিহত নবজাতক শিশু সূর্য্য মহন্তের মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজে প্রেরেণ করেছে পুলিশ। গুরুতর আহত স্ত্রী অনামিকাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর) সকাল ৭ টায় উপজেলার বারাই গ্রামে এই নির্মম ঘটনা ঘটে। ঘাতক সুভাশ মহন্ত বারাই গ্রামের শুনিল মহন্তর ছেলে। এই ঘটনায় নেশাখোর ঘাতক পিতা সুভাশ মহন্তক আটক করেছে পুলিশ।

ঘাতক সুভাশ মহন্তের প্রতিবেশিরা জানায় ঘাতক সুভাম মহন্ত পেশায় একজন অটো-রিক্সা চালক হলেও, সে অধিকাংশ সময় অটো রিক্সা না চালিয়ে নেশায় মাতাল হয়ে থাকে ও প্রায় সময় নেশার টাকার জন্য স্ত্রীকে মার ডাং করে। একই ভাবে বৃহস্পতিবার সকালে নেশার টাকা না পেয়ে স্ত্রী, সন্তানকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপায়।

ফুলবাড়ী থানার ওসি ফকরুল ইসলাম বলেন ঘটনার দিন (বৃহস্পতিবার) ঘাতক সুভাশ মহন্ত নেশার টাকা না পেয়ে, ধারালো অস্ত্র দিয়ে স্ত্রী ও সন্তানকে কোপায়। তার ধারালো অস্ত্রের কোপে ২২ দিন বয়সী শিশু পত্র সূর্য্য মহন্তর মৃত্যু হয়। এবং গুরুতর আহত হয় স্ত্রী অনামিকা। স্থানীয় গ্রামবাসীদের সহযোগীতায় নিহত নবজাতক শিশু সূর্য্য মহন্ত ও শিশুটির মা অনামিকাকে উদ্ধার করে, ঘাতক সুভাশ মহন্তকে আটক করে পুলিশ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য