দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে এক চিকিৎসকের ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাফিউল আলম ঘোড়াঘাট পৌর সভার আজাদ মোড় এলাকায় একটি মেডিসিন ফার্মেসীতে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে আজ ২৫ নভেম্বর বিকেলে জরিমানা করেন।

প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি ছাড়াই চিকিৎসা সেবা প্রদান করার কারণে দিনাজপুর আলতাফুন নেছা জেনারেল হাসপাতাল ও ডায়াগনষ্টিক সেন্টার এন্ড প্যারালাইসিস ও প্রতিবন্ধীদের চিকিৎসা ও পূর্ণবাসন কেন্দ্র এন্ড ফিজিও থেরাপি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা, মোঃ আরিফুর রহমানের জরিমানা করা হয়।

আরিফুর রহমান দীর্ঘ কয়েক মাস যাবৎ পৌর সভার আজাদমোড় এলাকায় একটি মেডিসিন ফার্মেসীতে প্রতি সোমবার চিকিৎসা সেবা প্রদান করে আসছিলেন।

ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট রাফিউল আলম জানান, ডাঃ আরিফুর রহমান ফিজিও থেরাপি বিভাগের চিকিৎসক। রোগীদেরকে ফিজিও থেরাপি সংশ্লিষ্ট প্রয়োজনীয় যন্ত্রদি ছাড়াই চিকিৎসা সেবা প্রদান করছেন। চিকিৎসা সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে বিশেষ কিছু যন্ত্রাদির প্রয়োজন হয়।

তিনি যন্ত্রাদি ছাড়াই নিয়মিত চিকিৎসা সেবা প্রদান করে আসছিলেন। এ কারণে তার অর্থ জরিমানা করা হয়েছে।

এদিকে, ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে উপজেলার ৭ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিকের কাছ থেকে জরিমানা আদায় করা হয়েছে। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রাফিউল আলম।

২৫ নভেম্বর বুধবার নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট রাফিউল আলম এ জরিমানা আদায় করেন। জরিমানাকৃত প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ১টি ঔষধের দোকান, ২টি রেস্টুরেন্ট, ২টি ভ্যারাইটি ষ্টোর ও ২টি কাঁচামালের দোকানসহ ৭ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিকের কাছ থেকে ২৮ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন।

ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রাফিউল ইসলাম জানান, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন-২০০৯, ড্রাগ অ্যাক্ট ও দন্ড বিধির ধারায় ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানে জরিমানা আদায় করা হয় ও মেয়াদ উত্তীর্ণ ঔষধ জব্দ করা হয়।ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা কালে উপস্থিত ছিলেন, দিনাজপুর জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক (এডি) মমতাজ বেগম, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মোঃ কামাল হোসেন সরকার, উপজেলা স্যানেটারি পরিদর্শক মোঃ ইসরাইল হোসেন ও র‌্যাব সদস্যরা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য