একটি মানুষও আর আশ্রয়হীন থাকবে না। মুজিববর্ষ উদযাপনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অঙ্গীকার বাস্তাবায়নে প্রতিটি ভূমিহীনদের জন্য ঘর নির্মাণ করে দিচ্ছেন সরকার। যাতে করে মানুষ বন্যা ও দুর্যোগ মোকাবেলায় এসব ঘরে স্থায়ীভঅবে বসবাসের সুযোগ পান। পাশাপাশি বন্যা প্রবণ ও নদী ভাঙ্গন এলাকায় শক্তিশালী বন্যা আশ্রয়ণ কেন্দ্র নির্মাণ করা হচ্ছে।

রোববার রংপুরের পীরগাছা উপজেলার শিবদেব চর দ্বি-মুখী বিদ্যালয়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রনালয়ের অর্থায়নে বন্যা প্রবণ ও নদী ভাঙ্গন এলাকার জন্য ৩ কোটি ৯ লাখ ৬৪ হাজার টাকা ব্যয়ে তিনতলা বিশিষ্ট বন্যা আশ্রয়ণ কেন্দ্র নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন উপলক্ষে এক সুধী সমাবেশে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি এমপি এসব কথা বলেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন রংপুর জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, উপজেলা চেয়ারম্যান শাহ মাহবুবার রহমান, এলজিইডি রংপুরের নির্বাহী প্রকৌশলী রেজাউল হক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেসমীন প্রধান, উপজেলা প্রকৌশলী মনিরুল ইসলাম, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আবদুল আজিজ, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আবদুল হাকিম প্রমুখ।

এর আগে বানিজ্যমন্ত্রী পীরগাছা-পাওটানা সড়কের কালিদাসের ঘাট নামক স্থানে ৩ কোটি ৩৪ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত ৫৪ মিটার ব্রীজের উদ্বোধন এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রনালয়ের অর্থায়নে বন্যা প্রবণ ও নদী ভাঙ্গন এলাকায় ৩ কোটি ৯ লাখ ৬৪ হাজার টাকা ব্যয়ে বন্যা আশ্রয়ণ কেন্দ্র নির্মানের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন।

এছাড়াও তিনি স্থানীয় তাম্বুলপুর ইউনিয়নের রহমতের চর গুচ্ছগ্রাম নির্মাণের জায়গা পরিদর্শন করেন এবং সেখানে আরো একটি ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন। এর আগে বানিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি পীরগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ মিলনের পিতা মরহুম শহিদুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা রশিদুল ইসলাম, হাসান আলো, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আরিফুল হক লিটনের পিতা মোজাম্মেল হকের কবর জিয়ারত করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য