যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ব্যাটলগ্রাউন্ড রাজ্য পেনসিলভেইনিয়ায় ডাকযোগে আসা লাখ লাখ ভোট বাতিলের দাবিতে প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের প্রচার শিবিরের করা মামলা খারিজ করে দিয়েছে একটি ফেডারেল আদালত।

শনিবার ওই রায়ে বিচারক ম্যাথু ব্র্যান বলেছেন, অনিয়মের যে অভিযোগ ওই মামলায় আনা হয়েছিল তার কোনো ‘মেরিট’ তিনি পাননি।

সিএনএন লিখেছে, গত ৩ নভেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জো বাইডেনের জয় উল্টে দিতে ট্রাম্পের চেষ্টা এই রায়ের মধ্য দিয়ে মরণ ধাক্কা খেল।

বিবিসি জানিয়েছে, পেনসিলভেইনিয়ায় রিপাবলিকান ট্রাম্পের চেয়ে ৮০ হাজারের বেশি ভোটে এগিয়ে থেকে জয় পেয়েছেন ডেমোক্র্যাট বাইডেন।

ট্রাম্পের মামলা আদালতে খারিজ হয়ে যাওয়ায় এ রাজ্যে বাইডেনকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিজয়ী ঘোষণা করতে আর বাধা থাকল না।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হতে পুরো দেশে ৫৩৮টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোটের অন্তত ২৭০টি পেতে হয়। এর মধ্যে ২০ ইলেকটোরাল ভোটের রাজ্য পেনসিলভেইনিয়ায় জয় নিশ্চিত হওয়ায় গত ৭ নভেম্বর বাইডেনের হোয়াইট হাউজ নিশ্চিত হয়ে যায়।

সব রাজ্যের ভোট গণনা শেষে বাইডেন পেয়েছেন ৩০৬ ইলেকটোরাল ভোট, আর ২৩২ ইলেকটোরাল ভোট ট্রাম্পের পক্ষে গেছে।

নির্বাচনে হার স্বীকার করতে নারাজ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ভোট জালিয়াতির অভিযোগ করে এলেও কোনো প্রমাণ তিনি দেখাতে পারেননি।

যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে ভোটের চিত্র দেখেই পরাজিত প্রার্থীরা হার স্বীকার করে নেন, এবং বিজয়ী প্রার্থী সরকার গঠনের প্রস্তুতি শুরু করে; বহু বছর ধরে এই রেওয়াজ চলে আসছে। কিন্তু ট্রাম্প তা না করায় সেই প্রক্রিয়া বিলম্বিত হচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য