দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কানিজ আফরোজ শনিবার সাপের কামড়ে আহত হয়েছেন।

দুপুর পৌণে এক টার দিকে ভূমিহীনদের গৃহনির্মাণের জন্য ফুলবাড়ী উপজেলার ২নং আলাদিপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ বাসুদেবপুর এলাকার খাসজমি পরিদর্শনকালে একটি ছোট ডারাস সাপের কামড়ে আহত হন। ঘটনাটি তিনি প্রথমে বুঝতে না পারলেও বাম পায়ের নিচে রক্ত বের হতে দেখে তার দপ্তরের সহকর্মীরা বিষয়টি বুঝতে পারেন। তাৎক্ষণিকভাবে তাকে ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর এম আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

ফুলবাড়ী ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার দেবাশীষ কর্মকার জানান, শনিবার উপজেলার আলাদীপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ বাসুদেবপুর মৌজায় গৃহনির্মাণের জন্য খাস জমি প্রদর্শনে জনবল নিয়ে যান উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কানিজ আফরোজ। প্রদর্শনের একসময় এসিল্যান্ড কানিজ আফরোজের পায়ে একটি ছোট ডারাস সাপ কামড় দেয়। তাৎক্ষণিকভাবে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়।

বিষয়টি জানার পর ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রিয়াজ উদ্দিন ও এসিল্যান্ডে কানিজ আফরোজের স্বামী নবাবগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আল মামুন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কানিজ আফরোজের খবর নিতে ছুটে আসেন।

আহত এসিল্যান্ড কানিজ আফরোজ বলেন, খাস জমি পরিদর্শনে যাওয়ার সময় এক ফুট লম্বা একটি সাপের শরীরে পা পড়ার পরপরই সাপটি তাকে আঘাত করে পালিয়ে যায়। তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি বুঝতে না পারলেও পরে বাম পায়ের নিচে রক্ত দেখে তিনিসহ তার সহকর্মীরা বুঝতে পারেন সাপটি কামড় দিয়ে পালিয়ে গেছে। পরে তাকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়েছে। তিনি তার সুস্থ্যতার জন্য সকলের দোয়া কামনা করেন।

ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. মশিউর রহমান বলেন, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। ১২ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণসহ উন্নত চিকিৎসার জন্য এসিল্যান্ড কানিজ আফরোজকে দিনাজপুর এম. আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রিয়াজ উদ্দিন বলেন, এসিল্যান্ড কানিজ আফরোজ জনবল নিয়ে ভূমিহীনদের গৃহনির্মাণের জন্য খাস জমি প্রদর্শনে যান। পরিদর্শনের সময় তাকে একটি সাপ কামড় দিয়েছে। বিষয়টি জানার পর জেলা প্রশাসককে অবগত করে উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর এম. আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য