দিনাজপুর সংবাদাতাঃ বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াসহ অন্যান্য আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি পিছিয়েছেন আদালত। শুনানির নতুন দিন ধার্য করা হয় আগামী ১২ জানুয়ারি।

মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) এই মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি হওয়ার কথা থাকলেও শারীরিক অসুস্থতার কারণে বিএনপির চেয়ারপারসন আদালতে হাজিরা দিতে না পারায় শুনানির দিন পেছানোর আবেদন করেন তার আইনজীবী।

খালেদা জিয়ার আইনজীবীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে শুনানির নতুন ধার্য করে ওই দিন বেগম জিয়াকে সশরীরে উপস্থিত থাকারও নির্দেশ দিয়েছেন এ এস এম রুহুল ইমরানের আদালত।

মামলার অভিযোগে জানা যায়, দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি থেকে কয়লা উত্তোলন, ব্যবস্থাপনা ও রক্ষণাবেক্ষণে ঠিকাদার নিয়োগে অনিয়মের মাধ্যমে রাষ্ট্রের ১৫৮ কোটি ৭১ লাখ টাকার ক্ষতি ও আত্মসাতের অভিযোগে ২০০৮ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি শাহবাগ থানায় মামলা করা হয় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াসহ তৎকালীন মন্ত্রিসভার বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে। ওই বছরের ৫ অক্টোবর বেগম জিয়াসহ ১৬ আসামির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দীর্ঘ ১২ বছর ধরে চলছে এই মামলার শুনানি।

মঙ্গলবার ছিল অভিযোগ গঠনের জন্য নির্ধারিত দিন। তবে এদিন অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে আদালতে উপস্থিত হননি বেগম জিয়া। বিএনপি জোট সরকারের সাবেক মন্ত্রী সাইফুর রহমান, আবদুল মান্নান, এম কে আনোয়ার ও এম শামসুল ইসলাম মারা যাওয়ায় মামলা থেকে তাদের অব্যাহতি দেওয়া হয়। এ মামলায় মোট আসামি ছিলেন ১৩ জন। চারজন মারা যাওয়ায় বর্তমানে আসামির সংখ্যা নয়জন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য