নীলফামারীর ডিমলায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের স্বাক্ষর জাল করে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নির্বাচিত কমিটি ভেঙ্গে দিয়ে নতুন করে আহ্বায়ক কমিটি গঠনের অভিযোগ।

জানাযায়, গত (৭ ডিসেম্বর ২০১৯) সালে উপজেলার খালিশা চাপানী ইউনিয় আওয়ামী লীগের সম্মেলনে ভোটের মাধ্যমে ইউনিয়ন কমিটি গঠন করা হয়। এতে মোট ২০৫টি ভোটের মধ্যে ১০৪ টি ভোট পেয়ে সভাপতি নির্বাচিত হন মোঃ সোহরাব হোসেন। এবং ১০৫ টি ভোট পেয়ে সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন আক্তারুজ্জামান চৌধুরী আকুল।

কমিটি গঠনের ১০ মাস পর ওই খালিশা চাপানী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সোহরাব হোসেন ও সাধারন সম্পাদক আক্তারুজ্জামান চৌধুরী আকুলসহ ৩জনকে বহিস্কার ও কমিটির বাকী ৯জনকে সাময়িক বহিস্কার করে গত(৪ অক্টোবর ২০২০)সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের স্বাক্ষর জাল করে পূর্বের(নির্বাচিত)কমিটি ভেঙ্গে দিয়ে ও ১১ সদস্য বিশিষ্ট নতুন আহ্বায়ক কমিটির অনুমোদন দেয়া হয়।

কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের স্বাক্ষরের বিষয়টি জাল মনে হলে খালিশা চাপানী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নির্বাচিত কমিটির নেতৃবৃন্দ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ নীলফামারী জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের নিকট স্বাক্ষর জালের অভিযোগ এনে লিখিতভাবে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহনের আবেদন করেন।

আবেদনের প্রেক্ষিতে জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ রংপুর বিভাগের দায়িত্বে থাকা সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের নিকট ডিমলা উপজেলার খালিশা চাপানী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কমিটি ভেঙ্গে দেয়া পুর্বের কমিটির নেতাদের বহিস্কারাদেশ ও নতুন আহ্বায়ক কমিটি গঠনের বিষয়ের চিঠিতে ওবায়দুল কাদেরের স্বাক্ষর জাল বলে নিশ্চিত হয়ে নীলফামারী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মমতাজুল হক ওবায়দুল কাদেরের জাল স্বাক্ষরিত বহিস্কারাদেশ ও নতুন আহ্বায়ক কমিটি অনুমোদনের স্বাক্ষর জাল বলে ঘোষনা করেন। এবং অত্র ইউনিয়নের পূর্বের নির্বাচিত কমিটিকে বহাল রেখে সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনার নির্দেশ প্রদান করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য