সংবাদ সম্মেলনঃ মাদক বিক্রেতা ও মাদক সেবী পিতা মো: স্বপন ইসলাম কর্তৃক বাড়ি দখল ও বিক্রির অপচেষ্টা ও ছেলেমেয়েকে হত্যা করে লাশগুমের হুমকী প্রদানের অভিযোগে দিনাজপুরে সংবাদ সম্মেলন করলো পুত্র ও কন্যা।

১২ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সদরের পৌর এলকার ফকিরপাড়া মহল্লার মো: সাব্বির ইসলাম। লিখিত বক্তব্য পাঠ করে তিনি বলেন,আমার মা মোছা: শাহানাজ পারভীনের বড়বন্দর কালিমন্দির এলাকায় নিজস্ব একটি ভাতের হোটেল ছিলো। ভাতের হোটেল চালানোর সময় আমার মাদকব্যবসায়ী ও মাদকাসক্ত পিতা মো: স্বপন ইসলাম হোটেলের নারী কর্মচারী পারভীনের সাথে অবৈধ পরকিয়া সর্ম্পকে লিপ্ত হয় এবং আমার মায়ের বিনা অনুমতিতে উক্ত কাজে মহিলাকে প্রায় ১০ বছর পূর্বে বিবাহ করে বাড়ি ও হোটেল ছেড়ে নিরুদ্দেশ হয়। আমার পিতা নিরুদ্দেশ থাকাকালেই সে আমার মাকে তালাক প্রদান করে। সে আমার মা শাহানাজ পারভীন এবং বোন সুইটি ইসলামের কোনোরুপ ভোরনপোষন দেননি। আমার মা, বোন সুইটিকে কষ্ট করে লেখাপড়ার খরচ চালান এবং বিয়ে দেন । অনেক অপেক্ষার পরও পিতা ফিরে না এলে গত ৪ বছর আগে মামারা আমার মাকে অনত্র বিয়ে দেন। এনিয়েই চলছিল আমাদের সংসার।

হঠাত করে গত একমাস আগে বাড়িতে ফিরে এসে আমার মাদকসেবী পিতা মো: স্বপন আবারো মাদক ব্যবসা করতে চায় এবং আমাদের বাড়িটি দখল করে বিক্রয়ের অপচেষ্টা শুরু করে। আমার মাকে হেনস্তা করতে দিনাজপুর কোতয়ালী থানায় আমার মা শাহানাজ পারভীন এবং তার বর্তমান স্বামী মো: মিল্টনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে আমার পিতা মো: স্বপন, যার নং ০১ তাং ০১/১১/২০।

মামলার পর বাড়ি দখলের জন্যে মরিয়া হয়ে সন্ত্রাসীদের দ্বারা আমাকে ও আমার বোনকে হত্যা করে লাশগুমের হুমকি-ধমকি দিয়ে বেড়াচ্ছে। এখন আমার মা এবং আমরা দুই ভাইবোন জীবনের নিরাপত্তহিীনতায় ভুগছি। যেকোনো সময় আমরা ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারি বলে আতংকে দিন কাটছে আমাদে। তাই আমরা আমাদের জীবন ও সম্পদের নিরাপত্তা চাই। আমরা সংসদ সদস্য মাননীয় হুইপ ইকবালুর রহীম ও স্থানীয় প্রশাসনের কাছে ন্যায় বিচার দাবী করছি। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সুইটি ইসলাম ও মাসুদ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য