সাংবাদ সম্মেলনঃ ৫ নভেম্বর বৃহস্পতিবার দিনাজপু প্রেসক্লাবে উইমেন্স চেম্বার অব কমার্স দিনাজপুর এর প্রতিনিধি জান্নাতুস সাফা শাহীনুরের বিরুদ্ধে ভূয়া সদস্য দেখিয়ে এবং বিভিন্ন প্রজেক্টে’র টাকা আত্মসাদ ও অনিয়ম এবং দূর্নীতির অভিযোগ এনে উইমেন্স চেম্বার অব কমার্স সদস্য আলেয়া বেগমসহ ১৯ জন নারী উদ্যোক্তারা সংবাদ সম্মেলন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান মেহের সুলতানা, উদ্যোক্তা সদস্য আলেয়া বেগম, নারী নেত্রী নুর ছাবা হোসেন, মির্জা শিরিন, আইরিন লতিফ, বিলকিস আরা, মর্জিনা খাতুন তনু, শাহনেওয়াজ শিউলি, সম্পা দাস মৌ, রশিদা বেগম, শাহানাজ পারভীন, জেসমিন সুলতানা, মরিয়ম বেগম, নাজমা বেগম, নেহা পারভীন, সুরাইয়া, সাবিনা ইয়াসমিন, ফেরদৌসী, আরফিন আরা, সোয়েবা, তৈয়বা ও ছবি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নারীদের নিজের পায়ে দাঁড়ানোর জন্য উদ্যোক্তা সৃষ্টির নানামুখি কর্মসূচী নিয়েছে।

এই কর্মসূচীকে পুজি করে জাতীয় মহিলা গণতান্ত্রিক পার্টি দিনাজপুর জেলা আহবায়ক জান্নাতুস সাফা শাহিনুর নারী উদ্যোক্তাদের বিভ্রান্ত করে লাখ লাখ টাকা আত্মাসাৎ করেছে এবং উদ্যোক্তাদের মনবল ভেঙ্গে দিয়েছে। শত শত নারীদের বাংলাদেশ উইম্যান চেম্বার অব কমার্স (বি,ডাব্লিউ,সি,সিআই) সদস্য করার প্রলোভন দেখিয়ে প্রায় ৫০০ নারী উদ্যোক্তাদের কাছে চেম্বারের সদস্য করে নেওয়ার নাম করে ১৪৫০,১৬০০ ও ১৮০০ টাকা পর্যন্ত চাঁদা আদায় করে এবং নবায়নের জন্য প্রতি বছর প্রায় ৫০০ জনের কাছে ৫০০ টাকা করে আদায় করে। ২০১৭ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত সে লাখ লাখ টাকা আদায় করেছে।

বাংলাদেশ উইম্যান চেম্বার অব কমার্সের দিনাজপুর প্রতিনিধি হিসেবে প্রভাব খাটিয়ে তার নিজস্ব কলোনী পাড়া মহিলা উন্নয়ন সংস্থা (কেএমডিএস) নামে প্রায় ৮ কোটি টাকার একটি প্রজেক্ট আনে। অথচ উক্ত প্রজেক্টে কোন সদস্যকেই পার্টনারশীপ করেননি। আমরা জান্নাতুস সাফা শাহিনুরের ঘটনাবহুল ষড়যন্ত্র সুষ্ঠ তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নিতে সরকারের প্রতি আকুল আবেদন জানাচ্ছি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য