দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদন্ড, ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদন্ডের রায় প্রদান করা হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার বিকেলে দিনাজপুরের অতিরিক্ত জেলা জজ আদালত-৩ এর বিজ্ঞ বিচারক মেহেদী হাসান মন্ডল এই রায় প্রদান করেন।

কারাদন্ডপ্রাপ্ত আসামীর নাম দেলোয়ার হোসেন (৫২)। তিনি জেলার পার্বতীপুর উপজেলার দক্ষিণপাড়া গ্রামের মৃত: আকবর আলীর ছেলে।

মামলা ও আদালত সূত্রে জানা যায়, গত ২০০৫ সালে পার্বতীপুরের উত্তর সালন্দর কাগজিয়া পাড়ার আকবর আলীর কন্যা রাবেয়া বেগমের সাথে বিয়ে হয় দেলোয়ার হোসেন। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকসহ বিভিন্ন কারণে স্ত্রীকে নির্যাতন করে আসছিল দেলোয়ার হোসেন। ২০১২ সালের ২৮ ডিসেম্বর দুপুরে পারিবারিক কলহের জের ধরে দেলোয়ার হোসেন তার স্ত্রী রাবেয়া বেগমকে লোহার সাবল দিয়ে মাথায় আঘাত করে। এতে ঘটনাস্থলেই স্ত্রী রাবেয়া বেগম মারা যান।

এ সময় এলাকাবাসী দোলোয়ার হোসেনকে আটক করে পুলিশের নিকট সোপর্দ করে। ওইদিনই রাবেয়ার ভাই আবু তাহের বাদী হয়ে পার্বতীপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরের দিনই সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেটের কাছে দেলোয়ার হোসেন স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেন।

দীর্ঘ ৮ বছর পর মামলার স্বাক্ষ্য-প্রমাণসহ বিভিন্ন কার্যক্রম শেষে দন্ডবিধি ৩০২ ধারায় আসামীকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড, ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদন্ডের রায় প্রদান করেন বিজ্ঞ বিচারক। মামলাটির রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন এপিপি এ্যাড. আতাউর রহমান আতা এবং আসামীপক্ষে ছিলেন (স্টেট ডিফেন্স) এ্যাড. খলিলুর রহমান।

দিনাজপুর আদালত পুলিশ পরিদর্শক ইসরাইল হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য