খ্যাতনামা ব্রিটিশ সাংবাদিক, লেখক রবার্ট ফিস্ক মারা গেছেন। তার বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর।

আইরিশ টাইমস জানিয়েছে, শুক্রবার বাড়িতে অসুস্থ হয়ে পড়ার পর তাকে আয়ারল্যান্ডের রাজধানী ডাবলিনের সেইন্ট ভিনসেন্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল, সেখানেই তিনি মারা যান। তার স্ট্রোক করেছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বিবিসি লিখেছে, ১৯৭০ এর দশক থেকে ফিস্ক মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ে সাংবাদিকতা শুরু করেন। মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন ঘটনা ও সমস্যা নিয়ে লেখালেখির জন্য বহু পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন তিনি। আবার যুক্তরাষ্ট্র, ইসরায়েল ও পশ্চিমা পররাষ্ট্র নীতি নিয়ে তার তীব্র সমালোচনা বিতর্কেরও কারণ হয়েছিল।

পাঁচ দশকের বেশি সময় ধরে তিনি বিভিন্ন ব্রিটিশ সংবাদপত্রের বৈদেশিক প্রতিবেদক হিসেবে কাজ করেছেন, সাংবাদিকতা করেছেন বলকান, মধ্যপ্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকার বিভিন্ন যুদ্ধ নিয়ে।

২০০৫ সালে নিউ ইয়র্ক টাইমস লিখেছিল, ব্রিটেনের বৈদেশিক প্রতিবেদকদের মধ্যে রবার্ট ফিস্কই সম্ভবত ‘সবচেয়ে বিখ্যাত’।

১৯৪৬ সালে দক্ষিণপূর্ব ইংল্যান্ডের কেন্ট কাউন্টির মেইডস্টোন শহরে জন্মগ্রহণ করেন ফিস্ক। পরে তিনি আয়ারল্যান্ডের নাগরিকত্ব গ্রহণ করে ডাবলিনের কাছে ডলকিতে বসবাস শুরু করেন।

ফিস্কের মৃত্যুতে ‘গভীর শোক’ প্রকাশ করেছেন আয়ারল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট মাইকেল ডি হিগেন্স।

সানডে এক্সপ্রেসের সাংবাদিক হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন ফিস্ক। এরপর টাইমস সংবাদপত্রে যোগ দেন। এই পত্রিকার হয়ে উত্তর আয়ারল্যান্ডের অস্থিরতা সংক্রান্ত খবর সংগ্রহের জন্য ১৯৭২ সালে তিনি বেলফাস্টে চলে যান।

পরে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ লেবাননের রাজধানী বৈরুতে অবস্থান করে সেখানকার গৃহযুদ্ধের খবর সংগ্রহের কাজ করেন। তিনি ১৯৭৯ সালে সংঘটিত ইরানের ইসলামি বিপ্লব, আফগানিস্তানে সোভিয়েত ইউনিয়নের যুদ্ধ এবং ইরাক-ইরান যুদ্ধ নিয়েও সাংবাদিকতা করেছেন।

টাইমসের মালিক রুপার্ট মারডকের সঙ্গে বিতর্কের জেরে ১৯৮৯ সালে এখান থেকে পদত্যাগ করেন। ওই বছরই ইন্ডিপেন্ডেন্টে যোগ দেন, শেষ পর্যন্ত এখানেই ছিলেন তিনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য