দিনাজপুর সংবাদাতাঃ স্বাধীন বাংলাদেশে কোনো ধর্মই সহিংসতা ও মানুষ হত্যা সমর্থন করে না। ধর্মের নাম ব্যবহার করে একটি উগ্রবাদী গোষ্ঠী দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অপচেষ্টায় তৎপর রয়েছে। এদের মূল উদ্দেশ্যে হচ্ছে বিশ্বের কাছে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করা। যে কোন সময় তারা আইন নিজের হাতে তুলে নিয়ে এমন ন্যাক্কারজনক কাজ করছে। এদের বিরুদ্ধে সরকারকে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহন করা উচিত।

লালমনিরহাটের পাটগ্রামে ধর্ম অবমাননার অপবাদে যুবক শহীদুন্নবী জুয়েলকে পিটিয়ে এবং আগুনে পুড়িয়ে হত্যার প্রতিবাদে ১ নভেম্বর ২০২০ রোববার বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী দিনাজপুর জেলা সংসদ আয়োজিত ‘প্রতিবাদী সমাবেশ’ কর্মসূচিতে বক্তারা এসব কথা বলেন।

দিনাজপুর প্রেস ক্লাবের সামনে বেলা সাড়ে ১১টায় শুরু হয়ে ‘প্রতিবাদী সমাবেশ’ চলে ঘন্টাব্যাপী। এতে উদীচী দিনাজপুর জেলা সংসদের সভাপতি অধ্যক্ষ হাবিবুল ইসলাম বাবুল এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন উদীচী জেলা সংসদের সাবেক সভাপতি আসাদুল্লাহ সরকার আসাদ, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রেজাউর রহমান রেজু, উদীচী দিনাজপুর জেলা সংসদের সাধারণ সম্পাদক সত্য ঘোষ, রবীন্দ্র সংগীত সম্মিলন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ ঘোষ, উদীচী সংগীত নিকেতন দিনাজপুরের অধ্যক্ষ বিমান দাস, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট দিনাজপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক সুলতান কামাল উদ্দিন বাচ্চু, মহিলা পরিষদ জেলা শাখার সভাপতি কানিজ রহমান, বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলা জেলা শাখার সভাপতি মনিরুজ্জামান জুয়েল, ভৈরবী দিনাজপুরের সাধারণ সম্পাদক রহমতুল্লাহ রহমত, বাংলাদেশ কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি জেলা শাখার সাধারণ বদিউজ্জামান বাদল, নাগরিক উদ্যোগের সদস্য আফসানা ইমু প্রমুখ। পরে প্রতিবাদী কবিতা আবৃত্তি করেন কাব্য কুঞ্জ’র সাধারণ সম্পাদক শেখ ছগির আহমেদ কমল।

প্রতিবাদী সমাবেশে এই জঘন্য ও বর্বোরচিত ঘটনার তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানিয়ে বক্তারা আরো বলেন, ঘটনার সাথে জড়িতরা রাষ্ট্রীয় শত্রু। অবিলম্বে তাদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনতে হবে। আর যারা ওই যুবককে বাঁচাতে এগিয়ে না এসে মোবাইলে সেই মর্মান্তিক দৃশ্য ধারণ করেছে তাদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা হোক। পাশাপাশি সেখানকার উপজেলা নির্বাহী অফিসার, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে প্রত্যাহারেরও দাবী জানান বক্তারা।

ঘন্টাব্যাপী প্রতিবাদী সমাবেশে বাংলাদেশ যুবলীগ জেলা শাখার সভাপতি রাশেদ পারভেজ, আমাদের থিয়েটার এর তারিকুজ্জামান তারেক, সুইহারী সংগীত নিকেতন এর সনৎ চক্রবর্তী লিটু, নিরাপদ সড়ক চাই এর নেতৃবৃন্দসহ বিপুল সংখ্যক সাংস্কৃতিককর্মী, কবি-সাহিত্যিক অংশ গ্রহন করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য