পঞ্চগড়ের বোদায় অন্যান্য বছরের মতো চলতি বছরও রোপা আমনের চাষ হয়েছে। পোকামাকড় ও রোগ-বালাইয়ের আক্রমণ ছাড়াই ইতোমধ্যেই বেড়ে ওঠা ধানের শীষে ভরে উঠেছে মাঠ। দৃষ্টিসীমা ছাপিয়ে চারদিকে বিরাজ করছে ধানের অপার দুলুনি। আর এ দোলায় লুকিয়ে আছে হাজারও কৃষকের রঙ্গিন স্বপ্ন। প্রাকৃতিক দুর্যোগ কিংবা কোনো বিপর্যয় না ঘটলে কৃষকদের আঙিনা ভরে উঠবে সোনালী ধানে। করোনা ভাইরাস মহামারির আর্থিক সংকট কাটিয়ে ঘুরে দাঁড়াবেন তারা।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, চলতি আমন মৌসুমে ২৪ হাজার ৪শত হেক্টর জমিতে রোপা আমনের লক্ষমাত্রা নির্ণারন করা হয়েছে। আমন ধান আবাদ হয়েছে ২৫ হেক্টর জমিতে। কৃষকেরা জানান, আমনের বীজ তলা ও ধান রোপণের সময় অতিবৃষ্টি হয়েছিল। তবে এতে ফসলের বড় কোনো ক্ষতি হয়নি। বেংহারী বনগ্রাম গ্রামের কৃষক ওসমান গণি কৃষক বলেন, আগাম জাতের ধান কাটা শুরু হয়েছে তবে চলতি মাসের মাঝামাঝিতে রোপা আমন কাটা পুরো পুড়ি শুরু হবে কৃষকরা এবার ভালো ফলন পাবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আল মামুন অর রশিদ বলেন, চলমান করোনায় আমনের বাম্পার ফলন ও উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্য নিয়ে আমরা মাঠ পর্যায়ে বিভিন্ন ধরনের কাজ করে আসছি। কৃষকরা যাতে লাভবান হতে পারেন এবং কোনো প্রকার সমস্যায় না পড়েন এজন্য আমরা সার্বক্ষণিক নজর রাখছি। আশা করি বিগত মৌসুমের মতো এবারও আমন ধানের বাম্পার ফলন হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য