প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস মোকাবেলায় ডনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের ব্যর্থতার কড়া সমালোচনা করে ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট প্রার্থী জো বাইডেন বলেছেন, প্রবীণ ভোটাররা যে তার কাছে ‘মূল্যহীন’, ভাইরাসের ভয়াবহতার বিষয়ে গুরুত্ব না দিয়েই প্রেসিডেন্ট তা বুঝিয়ে দিয়েছেন।

মঙ্গলবার ফ্লোরিডার দক্ষিণাঞ্চলে পেমব্রোক পাইনস শহরের একটি প্রবীণ সেবা কেন্দ্রে নির্বাচনী প্রচারণায় তিনি এ কথা বলেছেন বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বিবিসি।

“ট্রাম্পের কাছে আপনারা অপ্রয়োজনীয়, আপনারা বিস্মরণযোগ্য, আপনারা কার্যত কেউই না। এভাবেই তিনি প্রবীণদের দেখেন, আপনাদের দেখেন,” বলেন বাইডেন।

‘ব্যাটলগ্রাউন্ড স্টেট’ হিসেবে খ্যাত ফ্লোরিডায় ২০১৬ সালে ট্রাম্প সামান্য ব্যবধানে হিলারি ক্লিনটনকে হারিয়েছিলেন। তার জয়ের পেছনে প্রবীণ ভোটারদের বড় ভূমিকা ছিল; যদিও এবার ৬৫-ঊর্ধ্ব ভোটারদের মধ্যে তার জনপ্রিয়তা কমেছে বলে বেশ কিছু জনমত জরিপে ইঙ্গিত মিলেছে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নেওয়ার পর নির্বাচনী প্রচারণায় ফেরা ট্রাম্প সোমবারই ফ্লোরিডায় প্রচার চালিয়েছিলেন; তার সমাবেশে উপস্থিত কয়েক হাজার মানুষের অধিকাংশের মুখেই সেদিন মাস্ক ছিল না।

অন্যদিকে বাইডেনের প্রচারণা হয়েছে মাস্ক পরে, সামাজিক দূরত্বের নির্দেশনা মেনে।

ডেমোক্র্যাট এ প্রার্থী বলেছেন, করোনাভাইরাস যে বয়স্কদের জন্য ‘মারাত্মক’, রিপাবলিকান ট্রাম্প এ বিষয়টিকে অবজ্ঞা করেছেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট একমাত্র নিজেকে ছাড়া আর কোনো বয়স্ক ব্যক্তির প্রতি যত্নবান নন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

হোয়াইট হাউসের যে অনুষ্ঠানকে ‘সুপার স্প্রেডার’ বলা হচ্ছে, সে অনুষ্ঠানে আয়োজন এবং সেখানে রিপাবলিকানদের একে অপরকে জড়িয়ে ধরারও সমালোচনা করেছেন ৭৭ বছর বয়সী বাইডেন।

ওই অনুষ্ঠানে থাকা ব্যক্তিরা ‘পরিণতি নিয়ে সচেতন ছিলেন না’, আর এদিকে প্রবীণরা নিজেদের নাতি-নাতনিদের সঙ্গেও দেখা করতে পারছেন না, বলেছেন সাবেক এ মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট।

এদিকে মঙ্গলবার রাতে পেনসিলভানিয়াতে এক প্রচার সমাবেশে ট্রাম্প তার ডেমোক্র্যাট প্রতিদ্বন্দ্বীকে ‘মোটেও ভালো লোক নন’ বলে অ্যাখ্যা দিয়েছেন।

“তিনি খারাপ লোক। তিনি সবসময়ই ডামি,” বলেন ট্রাম্প।

পেনসিলভানিয়ার ভোট টানতে ডেমোক্র্যাট শিবির এ রাজ্যে বাইডেনের জন্ম ও শৈশব-কৈশোর কাটানোর উপর বেশি জোর দিচ্ছে। সেদিকে ইঙ্গিত করে মঙ্গলবার জনসটাউনের সমাবেশে রিপাবলিকান এ প্রার্থী বলেন, “তারা বলে তিনি স্ক্র্যানটনে জন্মেছেন। কিন্তু চলে গেছেন। তিনি চলে গেছেন। তিনি আপনাদের ছেড়ে গেছেন। আমাকে সুযোগ দিন।”

পেনসিলভানিয়ার পর ট্রাম্পের আইওয়া, নর্থ ক্যারোলাইনা, জর্জিয়া হয়ে ফের ফ্লোরিডায় সমাবেশ করার কথা রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য