১৯৩৯ সালের ১ সেপ্টেম্বর পোল্যান্ডের ভেস্টারপ্লাটেতে বোমা হামলা দিয়ে সূত্রপাত হয় দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের৷ তবে পোল্যান্ডে এখন পর্যন্ত অবিস্ফোরিত অবস্থায় ছিল দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সাক্ষী সেই ভূমিকম্প সৃষ্টিকারী বোমাটি। পোল্যান্ডের নৌবাহিনীর এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, বোমাটি নিষ্ক্রিয় প্রক্রিয়া চলাকালীন অবস্থায় এটির বিস্ফোরণ ঘটেছে।

বাল্টিক সাগরের শিপিং চ্যানেলের তলদেশে বোমাটি নিষ্ক্রিয় করার সময় বোমা বিশেষজ্ঞরা বলেছিলেন যে, এটি ১০০ ভাগ নিষ্ক্রিয় নাও হতে পারে তবে নিষ্ক্রিয় করতে গিয়ে বিস্ফোরণের সম্ভাবনা রয়েছে ৫০ ভাগ। নিষ্ক্রিয় প্রক্রিয়া চলাকালীন আচমকা বিস্ফোরণে বেশ কয়েকজন ডুবুরি আহত হয়েছেন।

বোমা নিষ্ক্রিয় করার সময় বন্দর শহর সুইনজস্কির কাছে প্রায় ৭৫০জন বাসিন্দাকে নিরাপদ দূরত্বে সরিয়ে নেওয়া হয়েছিল। আরএএফ ১৯৪৫ সালে আক্রমণের সময় একটি টালবয় বা “ভূমিকম্প” সৃষ্টিকারী বোমা ছুড়েছিল জার্মান ক্রুজার ল্যাটজোকে ডোবানোর জন্য।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় সুইনজস্কি জার্মানির অংশ ছিল এবং সুইনজস্কি কে সুইমেনডে নামে অভিহিত করা হতো। বোমটির সর্বশেষ বিস্ফোরণের সময় শহরের কিছু অংশে অনুভূত হয়।

সম্প্রতি বিস্ফোরণের একটি ভিডিও প্রকাশ পায় তাতে দেখা গেছে যে বিস্ফোরণের সময় শিপিং চ্যানেলের পানির কিছু অংশ শূন্যে ভেসে ওঠে। বোমাটি ৬ মিটার (১৯ ফুট) দীর্ঘ এবং এর ওজন ৫.৪ টন ছিল, শক্তিশালী এই বোমাটির প্রায় অর্ধেক বিস্ফোরকে ভর্তি ছিল।

পোলিশ নেভির উপকূলীয় প্রতিরক্ষা ফ্লোটিলার মুখপাত্র লে. সিএমডিআর গ্রজেগোর্জ লেওয়ানদোস্কি বলেছেন, “কোন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ছাড়াই অচলাবস্থায় থাকা বোমাটিকে বিস্ফোরিত হয়েছে। তবে এটি সুইনজস্কি শিপিং চ্যানেলের জন্য একটি ভালো খবর যে এটি আর কোন দুর্ঘটনার কারণ হবে না।”

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য